কবিতায় উজ্জ্বল কুমার মল্লিক

১। আমি ঊর্মিলা বলছি

আমি ঊর্মিলা, মিথিলা-নন্দিনী, রাজন
জনক পিতা, ব্রজের সুনইনা মাতা,
জ্যেষ্ঠা রাম-প্রিয়া, সৌমিত্র-কেশরী পতি,
সূর্য-বংশীয় কুলতিলক, মহারাজ
দশরথ শ্বশুর মোর; তবু বাল্মীকি
কাব্যে উপেক্ষিতা; উচ্চারিত কয়েকটি
শব্দ মাত্র, কী জানি কী দোষে মহাকাব্যে
থাকি অন্তরালে, বঞ্চিতা পতি সোহাগে
ভরা যৌবনে: থেকেছি ভীত মিথিলায়
সর্বদা, জন্ম মম কোন অশুভ ক্ষনে,
শুধুই বঞ্চনা প্রাপ্য আমার জীবনে। মহাকবির লেখনীও করে কার্পণ্য,
শব্দ সীমিত করি ঊর্মিলা উচ্চারনে;
সুখ বি-রহিত এ জীবন বিধি-বামে।

২। মজার খেলা

বা-রে ,বা-রে বা-বা-দেখে-যা–
কী মজার খেলা রে ভাই
কী বোঝা-বুঝির খেলা যে!
একে ছোড়ে গোলার বল
অন্যে হাঁকায় ব্যাটে ছক্কা;
খেলা যে গট- আপ ভাই
বোঝে এখন তা সবাই,
চুপ-চাপ রয় মানুষে।
আনন্দে শুভেচ্ছা জানায়
একে অপরে, হাসি মুখে
ফুল-ডোর সাথে চন্দনে;
মানুষ কাঁদে নিরালায়।
অদৃষ্টের করে শাপান্ত
কপাল ঠোকে অবিশ্রান্ত,
স্বাধীনতা কী অলক্ষুনে!
অন্ন-চিন্তা চমৎকারে
দিন ফুরায় হ’য়ে হন্যে,
দেশ-প্রীতি রয় বক্তিমে।
নিত্য কেবল রাজনীতি,
পদের-ই প্রতি আসক্তি;
সত্য হয় চার্চিল- উক্তি
প্রতি পদে পদে এদেশে।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!