T3 শারদ সংখ্যা ২০২২ || তব অচিন্ত্য রূপ || বিশেষ সংখ্যায় শ্রীপর্ণা বন্দ্যোপাধ্যায়

জয় বাবার জয়

 

বলো সবাই বাবা, বলো বাবার জয় –

বাবা দয়া করে বলেই রোজ ফিস্টি হয়।

সকাল সন্ধে যখন তখন আড্ডা বসে সেথা,

ঠাণ্ডা গরম সবই চলে – বাঁধা আছে ক্রেতা।

 

বাবার অনুচর, জাত কাঙালের দল,

ভিখ মাঙতেও করছে চোপা! করবি কী তুই বল?

মাসতুতো ভাই বোন, বড্ড আপনজন –

কাল যে ছিল পরম অরি, আজ সে প্রয়োজন।

 

সবাই দেবে চাঁদা, মরবে খেটে হাঁদা;

বাবার জন্য তাই খদ্দের আছে ঠিকই বাঁধা।

সবাই করছে দান, তবুও শূন্য ডালা!

সেসব নিয়ে প্রশ্ন কেন – এই হয়েছে জ্বালা!

 

 

পুজোর ডাক

 

পরীক্ষা তাই পড়ছি আমি

হোস্টেলেতে থেকে;

পুজোর জামা পৌঁছে গেছে,

বাবা গেছেন দেখে।

বোনের জন্য নতুন জামা,

মায়ের নতুন শাড়ি,

ঠাক্‌মা দাদুর শাড়ি ধুতি –

ভরে গেছে বাড়ি।

বাবাও এবার কাকার কাছে

ছিট পেয়েছেন দারুণ-

দর্জি বলে দেরি হবে

পুজোর ভিড়ই কারণ।

মাসি মেসোও দিয়ে গেছেন

আমার জন্য টাকা –

কী হবে আর পরে পেয়ে,

এখন তো হাত ফাঁকা।

কেন যে এই পরীক্ষাটা

পিছিয়ে গেল এমন –

পুজোর ছুটি নষ্ট হলে

মন করে না কেমন?

পড়াশুনোয় মন বসে না

মণ্ডপেতে ঢাক –

তোমরা মাতো আনন্দেতে

আমার কথা থাক।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!