• Uncategorized
  • 0

কবিতায় অরিন্দম অধিকারী

বান্ধবীর বিয়ে

আজ এই খুশির দিনে আমার বান্ধবীর বিয়ে
সেজেছে সে গায়ে হলুদ দিয়ে,
আলোকসজ্জায় সেজেছে আজ গোটা তার বাড়ি
আত্মীয়স্বজন এসেছে সব হাতে মিষ্টির হাঁড়ি,
পাত্র আবার মস্ত ধনী,মস্ত তার বাড়ি,
শাশুড়ি মা বরণডালা আনলো তাড়াতাড়ি,
সানাই বাজে ,উলু পরে,বাজে শঙ্খধ্বনি
বান্ধবী আমার বসিয়া আছে চোখে স্বচ্ছ পানি
পুরোহিত মশায় বলেন হেঁকে,কন্যা আনও দেখি
পাত্র ভাবে বউকে এবার দৃষ্টিভরে দেখি,,
বান্ধবী আমায় করেছিল বারণ” কোরোনা মিথ্যা আশা”
সেই কথাটিই সত্যি হলো,হারিয়ে গেল ভাষা,
ছাদনা তলায় আগুন জলে,বিয়ের কাজে লাগে,
সেই আগুনে পুড়ছি আমি ,মারা যাবার আগে,
পৌঁছে গিয়ে দেখলাম যখন সিঁদুর দানের সাজ,
বুকটা আমার ফাটতে লাগলো ভীষণ ভাবে আজ,
তাকিয়ে দেখি দিব্যি হাসে আমার বান্ধবীটা
নতুন মানুষের হাত ধরে সে পাচ্ছে আনন্দটা,
ফিরে এসে বসলাম আমি পথের ধারে ঘাসে,
আকাশ বাতাস সব কিছু আজ রমরমিয়ে হাসে,
দারিদ্রতা গ্রাস করেছে স্বপ্ন গুলো আমার,
পথগুলো সব বন্ধ আজ আমার ফিরে যাবার,
কুলকিনারা নাহি খুঁজি পাই,হারিয়ে গেছে গতি
সমবয়সী প্রেমের যে আজ মিললো পরিণতি,
সৌভাগ্য আমি করেছিলাম এই দিনটি দেখার,
ভাগ্য আমায় বুঝিয়ে দিলো,আমি যে বেকার,
বুকটা ফাটে,চোখ টা কাঁদে,সইতে পারে না যে
ভালোবাসা আজ শেষ হলো মোর ডাইরির কোনো ভাঁজে।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!