• Uncategorized
  • 0

ওপার বাংলার কবিতায় নির্ঝর নৈঃশব্দ্য

মূলত লিখেন এবং আঁকেন। জন্ম : ২৪ আগস্ট ১৯৮১, চকরিয়া, কক্সবাজার, বাঙলাদেশ। পড়াশোনা : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে চিত্রকলা। প্রকাশিত বই : 'পাখি ও পাপ' (২০১১, কবিতা), 'শোনো, এইখানে বর্ষাকালে বৃষ্টি হয় (২০১১, মুক্তগদ্য), ডুবোজ্বর (২০১২, গল্প), কাপালিকের চোখের রং' (২০১৩, কবিতা), 'পুরুষপাখি' (২০১৪, মুক্তগদ্য), 'আরজ আলী : আলো-আঁধারির পরিব্রাজক' (২০১৫, প্রবন্ধ), 'মহিষের হাসি' (২০১৫, কবিতা), 'রাজহাঁস যেভাবে মাছ হয়' (২০১৬, গল্প), 'আকাশ ফুরিয়ে যায়' (২০১৭, মুক্তগদ্য), 'হুহুপাখি আমার প্রাণরাক্ষস' (২০১৭, কবিতা), ‘উদ্ভিদ ও বৃন্দাবনী’ (২০১৯, কবিতা, ভারত থেকে প্রকাশিত), ‘কুসুমকুমার’ (২০১৯, মুক্তগদ্য)। সম্পাদিত বই : 'ওঙ্কারসমগ্র : বঙ্গবন্ধুর নির্বাচিত ভাষণের শ্রুতিলিপি' (২০১৭)। সম্পাদিত ছোটোকাগজ : 'মুক্তগদ্য' (২০১১ থেকে) ।

হাড় এবং তৃষ্ণা 

হাওয়াহীন রাতের ধারে প্রেত এসে শোয়
সে দূরবর্তী শব্দ শুনে কাতর তিন মাইল
বদলে যায় সমাধির ফলকে মৃতের স্মৃতি
দৃষ্টি আর দৃশ্যের ভিতর ভেঙে পড়ে শীত
মাস শেষে সে পলকা তুলোর সুরতাল
কাঠের ফ্রেম আটকে রাখে লাল প্রজাপতি
নখের রেখায় ঝুলিয়ে দেয় প্রত্নগন্ধ পট
কফিনের কপাটে ঝিলিমিল করে রামধনু
একদা তার তৃষ্ণা ছিলো সিদ্ধার্থের রূপ
হাড়ের ভিতর ছিল অদম্য মহিষের পাল
আমি তার হাড় এবং তৃষ্ণা পাল্টে দিলাম
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!