কবিতায় সুশীল চন্দ্র গোপ

মৃত্যু মুখে 

বলতে পার–
কোথায় আজ আমরা দাড়িয়ে ?
কেউ বলল,জীবন মৃত্যুর মাঝামাঝি
কারো মনে, দুঃসময়টা যাই এড়িয়ে ।
বলতে পার–
আজ কোন কাজটি ভালো করলে ?
কেউ বলল, ব্যবসায় মস্ত উন্নতি করেছি, ভাঁড়ার হয়েছে ভারী,
ছলে বলে কৌশলে ।
বলতে পার–
আর ক’দিন এ পৃথিবী বুকে আমরা আছি ?
কেউ বলল, আমি অনেক দিন বাঁচবো,
গনক কে হাত দেখিয়েছি।
কিংবা বংশের গড় আয়ু বেশ লম্বা ।
বলতে পার—
তোমার দেহে ক্ষমতা শক্তি রইবে ক’দিন ?
কেউ বলল, ভালো ভালো খাবার খাবো,
বাঁচবো য’দিন।
শক্তি হবে স্বার্থপর সিংহের মতো।
বলতে পার–
হিংসা ও অহিংসায় কি পাওয়া যায় ?
কেউ বলল, অতশত জানিনে আমি
এতো প্রশ্ন করো না আমায় ।
বলতে পার–
এ পৃথিবীতে কেন আসা যাওয়া ?
কেউ বলল, জন্ম মৃত্যুর নিত্য খেলায়,
হাসি কান্নায় অংশ নেওয়া
বলতে পার–
ভালোবাসতে অর্থের অপচয় হয় কি না ?
কেউ বলল, ব্যস্ত জীবনে সময় কোথায়
নিজের টা’ই সামলাতে পারি না ।
বলতে পার–
কেন আসা যাওয়া একাই করতে হয় ?
কেউ বলল, অতশত জানিনে,
হয়তো এতেই জয় পরাজয় ।
বলতে পার–
শত ভাবনা, আসা যাওয়ার শেষ ঠিকানা ?
কেউ বলল, যা হবার দেখা যাবে
এখন নিজেকে নিয়েই চিন্তা ভাবনা ।
বলতে পার–
কিসের আশায় চলছি পথ, কোন সুখে ?
এবার আমি বলছি, এ জীবন ভালোবাসার,
নীরবে রাস্তা মাপছি…
দিবানিশি সবাই ‘মৃত্যু মুখে’ ।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!