মার্গে অনন্য সম্মান সুমিতা চৌধুরী (সেরার সেরা)

অনন্য সৃষ্টি সাহিত্য পরিবার

সাপ্তাহিক প্রতিযোগিতা পর্ব – ১০০
বিষয় – সাহিত্য চর্চা/ শুধু তোমারই জন্য/ ছোঁয়া

সাহিত্যাঙ্গনে নারী

পুরাকালে মাতৃতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থায়
নারীর ছিল দেবীরূপে স্থান,
বিদ্যা-বুদ্ধি-জ্ঞানে সাহিত্যাঙ্গনে ছিল তাঁর
প্রথম সারিতে অধিষ্ঠান।
সময়ের বহমান ধারায় এল
পুরুষতান্ত্রিক সমাজ,
নারী হলো গৃহবন্দী, এক পণ্য স্বরূপ,
ঘুচলো তার দেবীর মান, ঘুচলো সম্ভ্রম-লাজ।
যে পুরুষ প্রত্যহ আরাধনায় পূজে
দূর্গা, কালী, লক্ষ্মী, হাজারো দেবীকে,
সেই পুরুষই ক্ষণে ক্ষণে অবহেলায়, অত্যাচারে,
কলুষিত করে গৃহলক্ষ্মীকে।
নারী যে স্রষ্টা, সৃষ্টি, সর্বংসহা, জননী,
তাই হাজার শৃঙ্খলে দমনে পীড়নেও সে হয়নি পরাভূত,
কালজয়ী রচনায় সে রেখেছে আপন সাক্ষর।
“সুবর্ণলতা”, “হাজার চুরাশির মা” সবার মনে তাই আজও জীবিত।
সমাজ, সংসার, অন্যায়, অবিচারে,
আজো তার শাণিত কলম সোচ্চারে কথা বলে।
তসলিমা নাসরিন, ঝুম্পা লাহিড়ী, আছে হাজারো নাম,
হাজার প্রতিরোধেও যাঁরা হয়নি পদানত, লিখিয়েছে নাম প্রতিবাদীর দলে।
আজও নয় মসৃণ নারীর এই পথচলা,
চলে আজো ব্যঙ্গ- বিদ্রুপ, শাসন-শোষণ,
তারই মাঝে নারী নিজ বিদ্যা-বুদ্ধি বলে,
করছে/ করছে আলোকিত সাহিত্যাঙ্গন।।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!