গুচ্ছকবিতায় রতন বসাক

ফিরে যাব

সারা সময় মাগো তোমায়
ভীষণ মনে পড়ে,
চাকরী ছেড়ে তোমার কাছে
যেতে ইচ্ছে করে ।

পেটের দায়ে রইছি হেথায়
দেশের মাটি ছেড়ে,
অচিন দেশে অচিন মানুষ
কেউ বলে না কেরে ?

একা একাই সময় কাটে
মনের দুঃখে থাকি,
কেঁদে কেঁদে সারাটাদিন
নিজেকে দিই ফাঁকি ।

আশিস করো আমি যেন
থাকি হেথা ভালো,
দূর হয়ে যাক মনের যত
কষ্ট গুলো কালো ।

কিছু কামাই হলে পরেই
ফিরে যাব আমি,
আমার কাছে তুমি হলে
সবার থেকে দামী ।

আর কত দিন

উন্নতি বেশ হচ্ছিলো ভাই
আমার দেশে সব,
ভাইরাস হানার ভয়ে দেখি
জগৎ জুড়ে রব ।

বাঁচতে হলে থাকতে হবে
বন্দি হয়ে ঘর,
নিকট মানুষ দূরের মানুষ
এখন সবাই পর ।

হঠাৎ করে লক ডাউনে
সবাই ঘরে আজ,
সেই কারণে বন্ধ হলো
ঊধর্বগতির রাজ ।

নীতি নিয়ম মানার জন্য
সব হারালো কাজ,
কর্ম হীনা থাকার ফলে
মাথায় পড়ে বাজ !

দেশের সূচক বদলে গিয়ে
আরো নিচে হয়,
এমন ভাবে আর কত দিন
অলস হয়ে রয় ?

আগে বাঁচো

দেশে এখন বইছে হাওয়া
মরণ স্রোতের ঢেউ,
মৃত্যু হলেও রোগের ভয়ে
যায়না কাছে কেউ ।

সেই কারণে সবার আগে
দূরে থাকো ভাই,
এখনও যে ওষুধ কিছুই
বিশ্বে আসে নাই ।

বেঁচে থাকলে আগে তুমি
পেতে পারো কাজ,
সরকারি সব নিয়ম নীতি
মানো সদাই আজ ।

আসুক আগে বিশ্ব মাঝে
টিকার কিছু ডোজ,
কারণ ছাড়া বাইরে এখন
যেয়ো নাতো রোজ ।

কষ্ট হয়তো হচ্ছে সবার
বদ্ধ থেকে ঘর,
সবাই যাতে ভাল থাকে
ঈশ্বর দিও বর ।

খুশি থাকো

কোথায় গেল সেদিনগুলো
আসবে কবে ফের,
সত্যি বলছি আগের দিনে
মজাই ছিল ঢের ।

ভাবনা বিনা খোলা মনেই
খেলে গেছি সব,
সবাই মিলে করে যেতাম
উচ্চ স্বরে রব ।

লেখাপড়ায় তখন এতো
ছিল নাতো চাপ,
নিজের চেষ্টায় ধর্মে কর্মে
রেখেছি তার ছাপ ।

এখন দেখি সবাই ছুটছে
সময় কারো নাই,
সবার এখন একটা ইচ্ছে
আরো বেশি চাই ।

যেটুক আছে সেটুক নিয়ে
খুশি থেকে যাও,
পরের দেখেই বেশি করে
কেন পেতে চাও ?

মায়ের মন

অনেক কষ্ট সহন ক’রেই
দেখায় ধরার আলো,
এই জগতে মায়ের মতো
নেই যে কেহ ভালো ।

সন্তান যাতে সুখে থাকে
তারই জন্য করে,
বিপদ এলে হালটা তখন
শক্ত হাতে ধরে ।

সারাজীবন করে যাবে
মুখটি বন্ধ রেখে,
সবার সামনে হাসি মুখে
নিজের কষ্ট ঢেকে ।

সন্তান যতই আঘাত করুক
যাবে সদাই ভুলে,
আদর ক’রে আগের মতোই
কোলে নেবে তুলে ।

ক্ষমা করার গুণটা মায়ের
থাকে মনের কোণে,
হাজার ব্যথা দিলেও মা’যে
রাখেনা তা আর মনে ।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!