কবিতায় প্রবীর দে

উত্তর দমদমের বিরাটিতে বসবাস করেন। প্রথমে শিক্ষকতা, তারপর দীর্ঘ ১০ বছরের কর্পোরেট চাকরি জীবন ,তারপর২০০২ থেকে আবার শিক্ষকতায় ফিরে আসা। ছাত্র জীবনে সাহিত্য চর্চার প্রতি ঝোঁক ছিল খুব । তবে ওয়েব ও প্রিন্ট ম্যাগাজিনে নিয়মিত ভাবে লেখালেখি শুরু 2016 থেকে। স্ত্রী'র অনুপ্রেরনাতে ই আবার এই সৃষ্টি সুখের স্বাদ গ্রহন। কবিতা ছাড়াও নাটক ও রম্য রচনা , ছোট গল্প ও গবেষণা মূলক প্রবন্ধ লেখার প্রতি ঝোঁক । প্রকাশিত একক কাব্যগ্ৰন্থ একটি, সংকলিত কাব্যগ্ৰন্থ ৪ টি , ছোটগল্প (সংকলিত) গ্ৰন্থের সংখ্যা দুই ,প্রথিতযশা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত গবেষণামূলক প্রবন্ধের সংখ্যা ৪ টি , নাটক ২ টি। এছাড়া কয়েকটি ওয়েব ম্যাগাজিনে কিছু কবিতা প্রকাশিত হয়েছে । এ পর্যন্ত পুরস্কার ও সম্মান যা পেয়েছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-- বিশ্ববঙ্গ সাহিত্য একাডেমি র যুথীকা সাহিত্য প্রদত্ত --" কাব্যশ্রী" ,"কাব্যসুধাকর" এবং "হাইকু প্রভাকর" উপাধি। সাহিত্যের প্রতি ভালোবাসার টানে মেঘদূত সাহিত্য পত্রিকার পরিচালন সৈনিক হিসেবে যুক্ত।

নালী-ঘা

চেতন অবচেতনের আকাশ-পাতাল
আকাঙ্ক্ষা ও প্রাপ্তির জমিন –আসমান
কিম্বা পর্যটন চুক্তির মতো স্বপ্ন ও বাস্তব …
জীবনের দ্বন্দ্বকে উসকে দেয় ,প্রতিমুহূর্তে ।
অবিরাম দ্বন্দ্বে ক্ষতবিক্ষত মনের আঁধারকে
অতিক্রম করার চেষ্টা করি চাঁদের আলোয় …
দুচোখ ভরে জীবনের শোভা দেখার সাধ জাগে …
অস্তিত্বের গভীরে যন্ত্রণাও জেগে থাকে,অসহায়ভাবে।
বস্তত , চাঁদের অন্ধকার পিঠ যে রয়েই যায় …
ঘা লুকিয়ে যতই হাসিমুখ দেখাবার চেষ্টা কর
প্রতিটি তাজা ন্যাকড়ার ফালি যে ঢুকে যাচ্ছে নালী-ঘায়ে ,
জীবন আর সভ্যতার আড়াআড়ি সম্পর্কও তলিয়ে যেতে চাইছে…।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!