কবিতায় মুনমুন লায়েক

১| আন্তরিক

রবি তোমার কিরন সুধা
সৃষ্টির কনায়-কনায় ছড়িয়ে দাও
প্রকৃতি তার পরম যত্নে ধারন করে
জননীর জঠরে সুপ্তশিশুর মত
চারিদিকে বাহিত হয় প্রান বায়ু
নদী পাহাড় ভেঙ্গে সাগরে মিলে
পালিত হয় কোটি কোটি স্পন্দন বুকে
জীবনের নাড়ী টান বাঁধা থাকে মাটিতে
শৈশবের ছায়াতে এগিয়ে চলে বার্ধক্য।

২| মনের মেঘ

যেতে চায় না, মন সেই সদূরে
যেখানে শুধু স্মৃতির জাল চোখের পাতা জোড়াতে চাই
ফেলে আসা পায়ের ছাপ
বাতাসে ভেসে উঠে তোমার গায়ের গন্ধ
ভাগ্য দোষ কি আর না তো করি, ভালোবাসার হাহাকার
মনে হয় এই কথাগুলো যাবে কত দূরে উড়ে উড়ে
বড়জোর মেঘের কোলে ভেসে-ভেসে
নাকি সন্ধ্যা তারা হয়ে ফুটবে আকাশে বা
রাত্রির জোৎস্না হয়ে পড়বে গায়ে
চোখের জল কোনো কথা মানবে না আর
শিশির হয়ে আচ্ছন্ন আছে চারিদিক কার
ব্যথা বাড়ে ভোলা যায় না, যে ভালোবাসাকে।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!