।। বন্দে মাতরম ।। কবিতায় কুণাল রায়

রাজদ্রোহী

সূর্যের প্রথম কিরণ যেই স্পর্শ করল পর্বত শিখর,
তোমার পরনে জীর্ন বস্ত্র,
মস্তকে তীক্ষ্ণ কন্টকের অনুভূতি,
শুধুমাত্র রুধীর রঞ্জিত কেশ আজ তোমার একমাত্ৰ সম্পদ,
ললাট প্রদেশে আজ চির অপরাজেয় মৃত্যুর নৃত্য,
রাজদণ্ডে দণ্ডিত তুমি আজ!
তোমার পদতলে নেই পুষ্পের কোমলতা,
তোমার ওষ্ঠে নেই স্নিগ্ধ হাসি,
তোমার নয়ন আজ অশ্রুসিক্ত,
তবু তোমার হৃদয়ে আজও অনল বর্তমান,
নেই কোন গ্লানি, নেই কোন অনুসূচনা,
আছে শুধু মরণের মাঝে অমৃত কে খুঁজে পাওয়ার,
একান্ত বাসনা!!
কিন্ত কি করেছিলে তুমি?
কেন তোমার এই শাস্তি?
প্রশ্নগুলো বড়ই সামান্য!
রাজসিংহাসনের প্রতি উঠে ছিল তোমার তর্জনি,
রাজতিলককে অবজ্ঞা করেছিলে তুমি,
রাজাদেশ অমান্য করেছিলে তুমি,
নিজের সবটুকু শক্তি দিয়ে গড়তে চেয়েছিলে ইতিহাস,
একত্রিত করেছিলে তোমারই অনুচরদের,
শঙ্খের নিনাদ ঘোষণা করেছিল বিদ্রোহ,
কিন্তু নিয়তির নিষ্ঠুর পরিহাস,
ব্যর্থ হয়েছিল তোমার অভিপ্রায়,
তোমারই ছায়া রূপান্তরিত হয়েছিল,
এক ছন্নছাড়া মহাপ্রাণে!
কারারুদ্ধ হয়েছিলে তুমি,
মৃত্যুই তোমার একমাত্র উপহার আজ।
কিন্তু মীরজাফর নও তুমি,
নও তুমি উমিচাঁদ,
নও তুমি হুমায়ুন,
নও তুমি মালিকাফুর,
ইতিহাসের এই চরিত্রদের ছাপিয়ে,
হয়ে উঠে ছিলে তুমি বিদ্রোহী,
এক আকাশ কৃশানু প্রজ্বলিত করেছিলে তুমি,
নিপীড়নের বিরুদ্ধে ঝড় তুলেছিলে তুমি,
বীর তুমি,
মহাবীর তুমি,
বিদ্রোহী তুমি!!
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!