সাপ্তাহিক ধারাবাহিক কথা সাগরে গৌর হরি মান্না (ভ্রমণ কাহিনী অন্তিম পর্ব)

জ্যোৎস্নায় মাখামাখি জামুয়ানি

বিষাদের এই সকাল বেলা জামুয়ানির এই প্রকৃতি ফেলে ফিরে যাওয়া বড়ো হৃদয় বিদারক।আজ সকাল থেকেই আকাশ মেঘাচ্ছন্ন,খানিক বৃষ্টি হওয়া দেখে মনে হলো এই বিদায় বেলায় প্রকৃতিও বুঝি কাঁদছে আমাদের জন্য। আমার চোখের দিকে তাকিয়ে যে মানুষটি ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে, আমাদের নিয়ে যার উচ্ছ্বাস চোখে পড়ার মতো সেই গোবিন্দ জির চোখের কোণ থেকে গড়িয়ে পড়ছে জল। যে রমণী ( গোবিন্দ জির স্ত্রী)তার চঞ্চল হৃদয় দিয়ে আমাদের সব আবদার কে মুখ বুজে মেনে নিয়েছে সেও আজ বাড়ির চৌকাঠে নয়ন ভিজিয়ে দাঁড়িয়ে। ওদের শখ-আহ্লাদ, অসুখ- বিসুখ, হাহাকার- আর্তনাদ সবই আটকে থাকে ওই আদিবাসী গ্রামের মাঝে। ওদের হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনা, সুখ-দুঃখ ভেসে বেড়ায় সিমলিপালের হৃদয় জুড়ে। সরকার আসে সরকার যায় ওদের অভাবি জীবন শুধু কেঁদে বেড়ায়। এই সাত পাঁচ চিন্তা করতে করতে গাড়ি নিয়ে ফিরে চললাম শহুরে সভ্যতার কংক্রিটের জঙ্গলে। গাড়ি ছুটছে আর আবছা কাঁচে ক্রমশ আবছা হয়ে যাচ্ছে আদিবাসী যুবক গোবিন্দ জি,আদিবাসী গ্রাম জামুয়ানি।

যে সকল বন্ধু এই নয় দিন ধরে আমাকে সমানে উৎসাহিত করে গেলেন তাদের প্রত্যেকের কাছে আমি কৃতজ্ঞ রইলাম।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!