বাস্তবিক তত্ত্বালোচনায় বিপ্লব গোস্বামী

সদ্ব্যবহারের জন‍্যই মানুষ গুণীজনে পরিণত হয়

মানব চরিত্রকে মহিমান্বিত করে গড়ে তোলতে যে কয়টি মহান গুণের দরকার সদ্ব্যবহার তার এক অন‍্যতম মহান গুণ।সর্বদাই সদ্ব্যবহারের মাধ‍্যমে মহামানবগণের মহান আদর্শ প্রতিষ্ঠিত হয়।সুন্দর ব‍্যবহার মানুষকে উন্নতির চরম শিখড়ে পৌছে দেয়।আমরা দেখেছি যারা গুণী ,যারা মহামানব তারা সত‍্যকে অনুসরণ করে তাদের জীবনের মহান সাধনাকে সফল করেছেন।গুণী ও মাহান মানুষ মাত্রেই সদ্ব্যবহারের উজ্বল দৃষ্টান্ত।সত‍্যবাদীতার জন‍্য তারা যেমন নিজের লক্ষ‍্যে সফল‍তা লাভ করে গুণীজনে পরিণত হয়েছিল।তেমনি সদ্ব্যবহারের জন‍্য তারা সকলের কাছে প্রিয়জন ও মহান আদর্শের উৎস হিসেবে যুগ যুগান্তর ধরে প্রেরণার উৎস হিসেবে কাজ করে আসছেন।
সদ্ব‍্যবহারের মাধ্যমেই মানুষের বিচার বুদ্ধি ও মনুষ্যত্ব বিকশিত হয়ে থাকে।নিজেকে অন‍্যের কাছে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার একমাত্র মাধ‍্যমই হচ্ছে সদ্ব্যবহার।নিজের ব‍্যক্তিত্বকে প্রকাশ করার জন‍্য প্রত‍্যেক মানুষকেই তার ব‍্যবহারকে অমায়িক করে গড়ে তুলা দরকার।কেননা, আসল পরিচয় ফুটিয়ে তুলতে হলে ব‍্যবহারের পরিবর্তন করে সবার সাথে সদ্ব্যবহার করতে হবে। নিজেকে শোভন,সুন্দর আর পরিশীলিত করে অন‍্যের প্রীতিভাজন হয়ে উঠতে হলে সদ্ব্যবহারের মাধ‍্যেমে ভালোভাবে কথাবার্তা ও ভালো আচার আচরণের মাধ্যমে মন জয় করতে হবে ।মানুষ সামাজিক জীব, প্রত‍্যেক মানুষই একে অপরের উপর নির্ভরশীল।তাই পরস্পরের প্রতি ভালো ব‍্যবহার মানব জীবনের অন‍্যতম ব্রত হওয়া একান্ত প্রয়োজন।মানুষের বংশের আসল পরিচয় তার আচার-ব‍্যবহারই।তাই মনুষ্যত্বের বিকাশের জন্য আচার-ব‍্যবহার সুন্দর হওয়া অত‍্যন্ত প্রয়োজনীয় বিষয়।মানুষের সত‍্যিকারের পরিচয় তার আচার-ব‍্যবহারেই ফুটে ওঠে।একজন মানুষ ভালো কি মন্দ ,তা অমনি অমনি বুঝে নিওয়া যায় না কিন্তু তার ব‍্যবহার দেখেই বুঝে নেওয়া যায় সে ভালো কি মন্দ।যারা ভদ্রলোক, যারা সৎ ও মহান তাদের কথাবার্তা, আদব-কায়দা ও আচার-ব‍্যবহার থেকে তাদের সদ্ব্যবহারের প্রকাশ পায়।এটা সত‍্য যে একজনের ব‍্যবহার ভালো হলে সে সহজেই সবার প্রিয়ভাজন হয়ে উঠতে পারে। নিজেকে সাবার প্রিয় পাত্র করতে চাইলে আগে নিজের ব‍্যবহার পরিবর্তন করতেই হবে।
যে সব ব‍্যক্তি অন‍্যের সঙ্গে সদ্ব্যবহার করেন তারা সবার ভালোবাসা, শ্রদ্ধা ও প্রশংসা লাভ করেন।মানুষের সাথে ভালো ব‍্যবহার করলে সবাই তাকে ভালো বলে পছন্দ করে।এটা চির সত‍্যে যে নিজে ভালো ব‍্যবহার করলে অন‍্যের কাছ থেকেও ভালো ব‍্যবহার পাওয়া আশা করা যায়।নয় তো অপরের কাছ থেকে ভালো ব‍্যবহার বা ভালো আচরণের প্রত‍্যাশাও করা যায় না।সুন্দর ব‍্যবহারই মানুষকে শান্তিপূর্ণ জীবনের নিশ্চয়তা দিতে পারে।সুষ্ট ও সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকতে হলে, জীবনে মহৎ কিছু করতে চাইলে অবশ‍্যই সবার সঙ্গে সদ্ব্যবহার করতে হবে।সুন্দর ব‍্যবহার মানুষকে শুরু সুন্দর করে তুলে না।বরং সুন্দর ব‍্যবহারই মানুষকে সব দিক থেকে সুন্দর করে তোলে। সেজন্য সত‍্যের পথ দৃঢ় ভাবে আঁকড়ে ধরে সবার সঙ্গে সদ্ব্যবহার করা উচিৎ।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!