• Uncategorized
  • 0

কবিতায় উজ্জ্বল সামন্ত

“জল ধরো জল ভরো”

“জল ধরো জল ভরো” বাঁচার তাগিদে
জলের অপর নাম জীবন, যদি মনে থাকে,
হাইড্রোজেন ও অক্সিজেনের গঠনের সমন্বয়ে
বিস্তৃত যার পৃথিবীর তিনভাগে
বর্তমানে ও আগামীতে ভয়াবহ অস্তিত্ব সংকটে
গ্লোবাল ওয়ার্মিং ঋতু বৈচিত্রের পার্থক্যে
দূষণে জর্জরিত পরিবেশ ,বাস্তুতন্ত্র অতিসঙ্কটে
হিমালয়ের বরফ গলে
ভূগর্ভস্থ পানীয় জল স্তর ক্রমশ নেমে
জলের অস্তিত্ব আগামীদিনে সংকটে
বাঁচবে পৃথিবী জীবজগৎ উদ্ভিদ কিভাবে?
দূষণ আজকে করছে গ্রাস জল বায়ু পরিবেশ
ঋতু পার্থক্য অতিবৃষ্টি অনাবৃষ্টি ,বৃক্ষচ্ছেদনে
পৃথিবীর উষ্ণায়নে পরিলক্ষিত হয়
নিরীক্ষণে ও অনুরণন এর সজাগ দৃষ্টিতে ।
জল সংকটে দায়ী মানবজাতির স্বার্থপর মনোভাবে
পানীয় জলের যথেচ্ছ ব্যবহার ও দূষণে
অরণ্য বৃক্ষচ্ছেদন এ সবুজ নষ্টে
অট্টালিকা কল কারখানা তৈরিতে,
বন্যপ্রাণী উদ্ভিদজগৎ আজ অস্তিত্ব সংকটে
যেমনটা হয়েছে সুদূর ব্রাজিলের অ্যামাজনে।
সচেতনতা ও প্রচার” জল ধরো জল ভরো”
শুধু নয় কৃষকের বা কৃষিকার্যে ,বিদ্যুৎ উৎপাদনে,
শ্লোগান হোক মূলমন্ত্র মানবজীবনে
মানবজাতির অস্তিত্ব রক্ষার্থে আগামীতে…
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!