দুটি কবিতায় অলক্তিকা চক্রবর্তী 

দায়বদ্ধ 

সময়ের স্রোত, মুছে যাওয়া পাণ্ডুলিপি
আর শরতকালের গল্প নিয়ে
যেই ঢেউ গুনতে বসলাম
অপেক্ষাতে অপেক্ষাতে কলমের ধার ক্ষয়ে এলো
মন্তাজ বদলালো সময়ের অসীমের মাঝে ঢুকে পড়লো
জবর দখল সীমানা
কে আহত?
কার আশায় আশায় দিনটুকু গুছিয়ে তুলছে
মাটির আলপনা?
মেঠো সন্ধ্যা প্রদীপের নিভু-নিভু তাপে
কেউকি ভুল করে সাড়া দিলো…
প্রতীক্ষায় জীর্ণ হল হাড় মাস কঙ্কাল…
ভাবের ঘরে চুরি না করেও অন্তত
এটুকু জবানবন্দীর দায় তো কলমের থাকে, তাই না…?

জন্ম কথা

নির্জনে কিছু পাল্টা আরমীড় ভেঙে ভেঙে গড়িয়ে পড়ছিল ধুন
একান্তের বিলাস আমার বিদুষী নোঙর ঠেলে
বেরিয়ে আসছিল মূর্তি মতি স্বাহা যেন…
শুধু গড়িয়ে পড়া টুকুই…  তাচ্ছিল্য ঠেলে দিচ্ছিল বিস্মরণের সীমা
হাওয়ায় অজান্তে মিশছিল কত কানা গলি লুন্ঠনের ইতিহাস
ব্যাপ্ত শীতল মুহূর্তের রঙ করা কোলাজ
বিরহ উসকে দিনের গা বেয়ে সন্ধ্যা নামা টুকু
উপভোগ করতে না করতেই কখন খসে গেছে সন্ন্যাসীর পোষাক টেরও পাইনি
অনন্তের বিষাদ মেঠো দাওয়ায় শিখার নড়াচড়া দেখে চোখ কচলে
নিজের নগ্নতা আবিষ্কার করে রত্না করের আখ্যান মনে পড়লো যেন…
কোনো এক অন্তরঙ্গ নদীর জন্ম কথায়…
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!