কবিতায় অমিত দে

ক্ষত

ভ্রমণ শেষে নির্জন ঘাট—
শীতে অবিরাম বৃষ্টি
মনের বিকেল শব্দহীন
তারপর ফোঁটা ফোঁটা জল
অব্যক্ত নয় যা
তাকে স্পর্শ করেছে কে!
মেঘ-ভাঙ্গা রোদ
চুইয়ে পড়া জীর্ণ আলো?
এই তো আদিম গাছ
যার আজীবন
শক্তির সঞ্চয়।
কোনোদিন ক্ষত নিরাময়
আচমকা বজ্রঝড়,
কোণায় কোণায় অপ্রাপ্তির বায়ু
দৃশ্যের বাইরে সমাপ্তিরেখায়
এঁকেছে আঁচড়

গ্রন্থি

আমরা প্রতিদিন বিকেলে হাঁটতে যাই।
দু’জন পাশাপাশি চলা যায় না, কখনও
তুমি এগিয়ে যাও কখনও আমি। সন্ধ্যায়
পাশাপাশি বসি,হাঁটু ব্যথার গল্পে হেসে যাই
শহর বড় হয়েছে অজান্তে —আমাদের
একাকীত্বের ভেতর। বাড়ির সামনেটা
ঘন হয়েছে অনেক।একটি উড়ালপুল
নাকি উঠে যাবে ওপরে; সব মানুষ
সব বাহন এগিয়ে চলবে ঠিক সময়ে
কেউ আর পিছিয়ে পড়বে না আমাদের
হাঁটাহাঁটির মতো
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!