কবিতায় উজ্জ্বল কুমার মল্লিক

১। রাজ ধর্ম

স্বাধীনতার হীনতায় কে বাঁচিতে
চায়রে, কে বাঁচিতে চায়!
মিথ্যা, তঞ্চকে, চমক ও শঠতায়
কে শান্তি পায় রে, কে পায়।
আকাশে বাতাসে শহীদের বেদনা
ভাসে যে দেখি, ওরে শোন,
হতাশায় মানুষের অন্তর কাঁদে,
দুঃখে ভরা সে অনুক্ষণ।
শত শহীদের ঐ আত্ম-বলিদান,
যাবে কী বৃথা, ওরে বল,
ছলনা না করি দেশ-সেবক বন,
জীবনে দাগ রেখে চল।
দেশ-সেবা নয় রে কেবল ভাষন
অভাব- অভিযোগ শোন,
আইনের শাসন হোক্ বলবৎ
ঘটুক মানব কল্যাণ।

২। হায় বিদ্বজ্জন!

সত্য, অসত্য, সবই একধারে রাখি
ফেলে অনাদরে, কেবল তুমিই চলি
ভজে একমনে, সঙ্গোপনে;পুষি আশা
শিরোপা পড়ে মাথে, তোমার কৃপা বলে।
তোমার অনুমোদনে সম্ভব সব-ই
এখানে;কী জাদুতে! বশীভূত সকলে।
ইন্দ্রপ্রস্থেও গৌরব ভজনা তোমার
অঘোষিত ভাবে;ছায়া-যুদ্ধের মাঝেও
বোধ্য আজ সকলের কাছে, নেহাতই
বোকাকান্ত মরে শুধু বিরুদ্ধাচরণে

সততার মোড়কে রেখেছ আপনাকে
সতত গোপন সুকৌশলে;অভিলাষ
পুরেছে তোমার সকল-ই;বুদ্ধিজীবী
আজ নিগীর্ন, প্রজন্ম দেখি সিংহাসনে।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!