মার্গে অনন্য সম্মান শ্রীস্বদেশ সাধক সরকার (সেরার সেরা)

অনন্য সৃষ্টি সাহিত্য পরিবার

সাপ্তাহিক প্রতিযোগিতা নং – ১১৮
বিষয় – সঙ্কল্প

প্রত্যয়

জনমানসে একটা ধারণা প্রচলিত
আছে যে স্হির প্রত্যয় তথা সঙ্কল্প বিহীন কোন
কাজ কোন সময়েই সার্থকতা পায় না ।
কথাটি যে নিছক মিথ্যা বা ভুল তা কিন্তু
নয়। পরিকল্পনাবিহীন কোন কাজ যেমন
সম্পূর্ণ রূপ পেতে পারে না তেমনি সেই
পরিকল্পনার প্রতি সদর্থক ভূমিকা তথা
দৃঢ় আস্হা মানে মরণপন সংগ্রাম না থাকে,
না থাকে নিষ্ঠা ও নীতিবোধ তখন বিষয়টি
গোলমেলে ও মাঝপথে বাধাবিঘ্নের
সম্মুখীন হয় ।
পৃথিবীর যত কিছু উদ্ভাবনী ,যত কিছূ
আবিষ্কার,যত কিছু বৈজ্ঞানিক গবেষণা
সব কিছুর পিছনে দৃঢ় সঙ্কল্পই ছিল বলেই
সে তার অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছুতে সক্ষম হতে
পেরেছে।
সে ভেলেন্তানা তেরেস্কভার চন্দ্র অভিযান,
কি এভারেষ্ট বিজয় অভিযান,কি মিহির
সেন,বুলা চৌধূরীর সাত সমুদ্র অভিযান
হোক কিংবা আর্জিণ্টিনার বিশ্বকাপ
ফুটবল জয় অথবা শচীন তেন্ডুলেকার বা
বিরাট কোহলি অথবা হার্দিক পান্ডিয়া
হওয়ার পিছনে সঙ্কল্প ছিল বলেই সার্থকতা
এসেছে।
এ কথা ঠিক,কোন কিছুই একবারেই হয়
না,সব কিছুর পিছনে প্রতীক্ষা ,প্রত্যয়,লক্ষ্য
নিশানা,পথ ও দিশা ও বাস্তব অনুশীলনের
মধ্যে গিয়ে সে সঙ্কল্প সফলতা পায়।
সঙ্কল্পের পিছনে চাই কঠোর পরিশ্রম,কখনো
কিছু ভুলছুক হলে পিছুটান দেয়া বা হাল
ছেড়ে দেয়া কিংবা হতাশাগ্রস্হ হওয়া
সঙ্কল্পের গুণাবলী নয়।
লেখাপড়া হতে খেলাধূলা,কবি হতে
সাহিত্যিক ,নাটক,থিয়েটার,সমাজের যা
কিছু উত্তরণের পথ সবার পিছনে দৃঢ়
সঙ্কল্প,স্হির প্রত্যয়ই পারে অভীষ্ট লক্ষ্যের
শেষ বিন্দুতে পৌঁছুতে-তাই হতাশা নয়,
অবহেলা নয়,চাই মানসিক দৃঢ়তা আর
কঠোর পরিশ্রম আর সত্যের প্রতি
আস্হাবান তবেই যাবতীয় কাজে সুফল
পাওয়া সহজতর হয় ।
হালে পৃথিবী যে মহামারী ,অতিমারীর কবলে
পড়েছিল তাতে সরকার ও জনগণের যৌথ
প্রয়াস ও তার দৃঢ় সঙ্কল্পই পৃথিবীকে মুক্তির
আলোয় নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে যা
মানব সভ্যতার কাছে এক বিরাট নিদর্শন ।
কাজেই সঙ্কল্পই হলো সমস্যা সমাধানের
একমাত্র পথ এর কোন বিকল্প নেই ।
সঙ্কল্প,প্রত্যয়,কসম ও শপথই চলার পথে
জীবনের একমাত্র মূলমন্ত্র বিশেষ বলে
সকলেই বিশ্বাস রাখেন ।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!