কবিতায় শিপ্রা দে

১| শিউলির নীরব ব্যথা

শিশির ভেজা শরৎ সকাল শিউলি সুবাস ভাসে।
ব্যকুলিত আকাশ বাতাস মেঘ বালিকা হাসে।
শরৎ চাঁদের ঝিকিমিকি শেফালিকার গালে
ক্ষণিকের সুখ কুড়িয়ে নেয় ফুলে ভরা ডালে।
ভোরের বেলা ঝরে পড়ে যে ফুল ফোটে সাঁঝে
বিষণ্ণতায় দাঁড়িয়ে গাছ ঝরাফুলের মাঝে।
আগমনীর গান গেয়ে যায় শিউলি তলায় মেয়ে
অশ্রু বিন্দু ঝরতে থাকে গাছের নীচে ছেয়ে।
শুভ্র দেহ গৈরিক বসন নীরব ব্যর্থ প্রেমে
সুবাস ছড়ায় আমরণ, সে যায় না তবু থেমে।
বুকের দুঃখ আজন্ম তার দিবাকরের কাছে
অভিমানে ঝরে যায় দেখা না হোক পাছে।

২| অভাবী ঘরের পুজো

আকাশে বাতাসে পুজোর সুবাসে
আনন্দে সব আটখানা
ছোট্ট মেয়ের চোখের জলের
মূল্য কারোর নেই জানা।
বোধনের ঘট ছলক ছলক
পুজোর খুশির আনন্দ
বস্তি ঘরের ময়নামতীর
ভাতের হাঁড়ির নিরন্ন।
পুজো মন্ডপে সাজছে ঠাকুর
ধুমধাম হবে কয়দিন !
ছোট্ট মেয়ের করুন দৃষ্টি
বিষণ্ণতার বাজে বীণ!
উপচে পড়ছে দোকানের ভীড়
ধনীর ঘরের কেনাকাটা
ফুটপাতে বসে হাজার প্রশ্ন
আমরা কেন মা ছেঁড়া ফাটা?
বাইরে সাজছে খাবার দোকান
ফুচকা,কাবলি,রোল,চানা
মলিন মুখের অনাহারী পুঁটি
বন্ধ বাবার কারখানা।
বাজছে মাইক পাড়ায় পাড়ায়
ছোটাছুটি,হৈ হুল্লোড়
ভোরের শিশির গায়ে মেখে বধু
শিউলি তলায় তোড়জোড়।
বস্তি ঘরের শ্যামলা মেয়ের
কাগজ কুড়ানো ঘুরে ঘুরে
ধুলোয় লুটায় ছিন্ন আঁচল
মলিন বদনে হাসি জুড়ে।
তৈরি হচ্ছে আলোক সজ্জা
ঝকমারির সে সন্ধ্যায়
গল্প লিখছে অগোচরে মেয়ে
অভাবী পুজোর অধ্যায়।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!