|| কালির আঁচড় পাতা ভরে কালী মেয়ে এলো ঘরে || T3 বিশেষ সংখ্যায় সুনীতি দেবনাথ

আত্মহত্যার মেঘ

আমি আর আমার সময়েরা দরজার এপারে শুয়ে থাকে ২৪ ঘন্টা।
ওপাশে বসন্ত এসেছে দেখেছে আমার ফ্যাকাশে চোখও,
চোখেরা মাপতে থাকে এক একটি হলদে পাতার পতন আর এক নতুন সবুজ পাতার জন্ম সময়ের মধ্যবর্তী ক্ষণটুকু।
জন্মকে বলি, আরেকবার চেয়ে দেখো,
কী অপরূপ পলাশ ফুটেছে পৃথিবীর সীমানায়।

এক আশ্চর্য লাল আগুনে বসন্ত কাঁধে নিয়ে যে সাইকেলের ডানায় উড়ে যেতে ভালোবাসতো,
দেখি তাকে বহু দূরে কুয়াশা পোশাকে আজ ,
কেন শেষবেলায় বাতাসকে চাদরে বেঁধে,
এত ধীরে ধীরে বয়ে যাওয়া তার!
পাতার মতো অবিরাম ঝরিয়ে চলে যায়
শ্বেত পালকরাশি সব পথে পথে,
যেন একেকটি পালক
আমার এক একটি বেঁচে যাওয়া অনন্ত প্রহর।
যেন দীর্ঘ দীর্ঘ শীতকালের শেষে আবারও দেখা।
অতি পরিচিত বন্ধু পথভ্রষ্ট হয়ে এসেছে অন্যকোন বসন্তসাজে ফিরে,
যেন বলে যায় আমায়,
ছলকে গিয়েছে আমাদের সব মধুবেলা,
চল তবে আকাশে সাজাতে যাই আত্মহত্যার মেঘ।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!