ছড়াতে বাগধারায় শিলাদিত্য (প্রথম পর্ব) 

জন্ম ১১/১০/৬২, রম্যরচনায় অসাধারণ পারদর্শী, লেখেন রম্য কবিতা এবং ছড়া।
অভাবেতে নষ্ট স্বভাব…
অতি নুনেতে রন্ধন…।
সম্পর্ক তিক্ত হয়….
বাড়লে অতি বন্ধন…।।
ঠোঁট কাটাই বলতে পারে..
সকল কথা স্পষ্ট..।
শুনেছি তো অতি লোভে..
তাঁতি যে হয় নষ্ট…।।
শাঁখের করাত নাকি কাটে…
আসতে এবং যেতে…।
অষ্টরম্ভা থাকে ঘোড়ার…
ঘাস কাটাতেই মেতে…।।
নিজের ঢাক পেটালে নিজে…
হয়না সেতো মানী…।
ফাঁকা কলসির আওয়াজ বেশী…
এটাও মোরা জানি…।।
কুমীর আনতে কেবা চায়…
নিজেই কেটে খাল…।
যৎ সামান্য কথার কথা…
তিল থেকে হয় তাল…।।
জেগে যদি ঘুমায় কেউ…
ঘুম ভাঙ্গানো দায়…।
একই ঢিলে দুই পাখী…
কভু মারা যায়..!!!
বরের ঘরের পিসি আর…
কনের ঘরের মাসি…।
সত্যি হবে গরীব বাক্য…
যখন তা হয় বাসি…।।
কথায় কথায় তেলে বেগুনে…
জ্বলে ওঠে যে খালি…।
সহজ কথা বুঝবে সে কি..!!
সে গুড়েতেও বালি…।।
উনিশ থেকে বিশ হলেই…
কেঁদে পাবে না কুল…।
রাহুর দশায় ধরলে দেখবে…
চোখে সর্ষের ফুল…।।
পেটে খেলে সইবে পিঠে…
একথা মিছে নয়…।
দু নৌকায় পা দিলে যে…
জলে পড়ার ভয়…।।
গাছে না উঠেই এক কাঁদি..!!!
বুঝুন তো কি জ্বালা..!!
এঁড়ে গরু, দুইলে টেনে…
ভস্মেই ঘি ঢালা…।।
ফকির দেখায় কেরামতি…
কাক মরলে ঝড়ে…।
সর্ষের মধ্যে থাকলে ভুত…
ওঝাতে কি করে..!!!
গরীব ভুগলে ঘোড়া রোগে…
বদ্দি মেলে কই…??
মাঝখানেতে সুযোগ বুঝে…
নেপোয় মারে দই…।।
গাছে কাঁঠাল ফললে কি লাভ…
গোঁফে দিলে তেল…!!!
কাকের কিইবা এলো গেলো…!!
পাকলে গাছে বেল…!!!
ঘুঁটে যখন পুড়ে মরে…
গোবর তখন হাসে…।
বাঙালির তেরো পার্বণ…
আসে বারো মাসে…।।
নেই গো যার কোনদিন…
সাদা মনে কাদা…।
জন্ম জন্ম মোট বয়ে যায়…
তাইতো ধোপার গাধা…।।
সততা না থাকলে পরে…
হবেই যে পথভ্রষ্ট…।
অত্যধিক সন্ন্যাসীতে…
হয় যে গাজন নষ্ট…।।
যা চমকায় তা নয় সোনা…
সবই যে হায় মায়া…।
দুকান কাটা বেহায়ারা…
হবেই ঢাকের বাঁয়া….।।
সোনার পাথর বাটি আর…
কাঁঠালের আমসত্ত্ব…!!
চোখ বাঁধা ঐ কলুর বলদ…
ঘানি টানতেই মত্ত…।।
কেঁদে কেটে অকুলে কুল…
যায় কখনও পাওয়া…!!
নুন আনতে পান্তা ফুরায়…
দিন আনা, দিন খাওয়া…।।
সাত খুন মাপ সত্যি কি হয়…!!
আইন কি নেয় মেনে…??
যত টাকাই লাগুক নাকি…
দেবে গৌরী সেনে…!!!
অতি দর্পে হতা লঙ্কা…
কথা মিছে নয়…।
‎কখনও বা শাকের তলায়…
মাছ ঢাকতেও হয়…।।
চল যে যার ওজন বুঝে…
নইলে খাবে কেস…।
দোষে দুষ্ট নন্দ ঘোষের…
জীবন হলো শেষ…।।
কান পাতলা, পেট পাতলার…
নেই তো কোন কাম…।
এই সমাজে নেইকো তাদের…
কানাকড়িও দাম…।।
সাত চড়েও রা কাড়ে না…
এমন সুবোধ ছেলে…।
চোরের ওপর বাটপারি সে…
করে সময় পেলে…।।
গোবর গনেশের টনক নড়ে…??
দিলেও আঁতে ঘা…!!!
উড়ো খই গোবিন্দায় নমঃ…
দেখে সাপেরই পাঁচ পা…।।
না হোমে না যজ্ঞে লাগে…
সবেধন নীলমণি…।
যদি কেউ দেয় গো তারে…
কানেতে ভাঙ্গানি…।।
অকাল কুষ্মাণ্ড যদি…
পুত্র কারও হয়…।
অন্ধের যষ্টি তারে…
কেউ কখনও কয়…!!!
চোর কভু নাহি শোনে…
ধর্মেরও বানী…।
অরণ্যে রোদন সেতো…
এও মোরা জানি…।।
বাঁশ বনেতে ডোম কানা…
এটা যেমন ঠিক…।
গেঁয়ো যোগীর ঠিক তেমনই…
মেলে না তো ভিখ…।।
আহ্লাদে সব আটখানা…!!
বরাত পোয়া বারো…!!
নেই কাজ তো খৈ ভাজ…
দোহাই এবার ছাড়ো…।।
পদ্মলোচন যদি হয়…
কানা ছেলের নাম…।
ছাই ফেলতে ভাঙ্গা কুলো…
আমি তো রইলাম…!!
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!