সাপ্তাহিক ধারাবাহিক উপন্যাসে সোনালি (পর্ব – ১০১)

রেকারিং ডেসিমাল

ভোর হল বিছানার পাশের লোহার শিক দেয়া জানালার বাইরে থেকে অজস্র মানুষের যাতায়াতের কোলাহল শুনে।
মা চমকে উঠে বসে শুনতে পেলেন, ভারতের সব রকম ভাষায় নানান ধরনের কণ্ঠস্বর বলে চলছে, নমঃ শিবায়, হর হর মহাদেব , শিব শিব শিব…
উঁকি দিয়ে দেখা গেল, ভিজে কাপড় পরে মানুষের স্রোত চলেছে মন্দিরের দিকে।
বোঝা গেলো, সবাই গঙ্গায় স্নান সেরে বিশ্বনাথের মাথায় জল দিতে চলেছে ভেজা কাপড়ে।
উঁচু পালঙ্কের মত কাঠের মস্ত খাটে দুই ছানাকে দু দিকে নিয়ে রোজকার মতোই শুয়েছিলেন মা। বাইরের দিকের ধারে বাবা শুয়ে, নইলে পাছে কেউ পড়ে যায়।
মা ব্যাগ থেকে বিস্কুট, মুড়ি বের করে রেডি হলেন সারা দিনের যুদ্ধের জন্য।
বারান্দায় মিশ্রজীর গলা পাওয়া গেল।
চা নিন সবাই, যেতে হবে ত। চলুন চলুন শিগগিরই। হর হর মহাদেব! ওঁ নম শিবায়।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!