মেহেফিল -এ- শায়র রুমি রহমান (নির্বাচিত কবিতা)

একটি অমিয়পত্র

অমিয়,
ধরো যদি হঠাৎ চলে যাই, কেউ জানবেনা !
অচ্ছুৎ ভেবে কেউ ছোঁবেনা আমাকে !
নামমাত্র কিছু ওষুধ, কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্রের কাতর গোঙ্গানি, কেউ শুনবেনা।
কণ্ঠনালী ফেটে চৌচির হবে,
প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টে আমার নীলঠোঁট ভেজাবেনা কেউ একচিমটি জলে !
ততোক্ষণে সফেদ হেসে মৃত্যু এসে দাঁড়াবে আমার সামনে !
আমি লাশ হবো, আমার হিমশীতল শরীর হয়তোবা
অন্য কোন লাশের শরীর ঘেঁষে শুয়ে থাকবে কতক্ষণ কে জানে ।
আমার কপাল বেয়ে চোখের কোল ঘেঁষে দুগাছি চুল
নীল ঠোঁট ছুঁয়ে পড়ে থাকবে কতো অবহেলায় !
বেঁচে থাকার চেষ্টায়, প্রাণান্তকর যুদ্ধে হেরে যাওয়া
ক্লান্ত শ্রান্ত বিবশ মুখখানি আমার,
বিধিনিষেধের দেয়ালের ওপাড়ে
নিরাপদ দূরত্বে দাঁড়িয়ে দেখবে তুমি !
হয়তোবা তক্ষুনি মনে পরে যাবে,
সাগর সৈকতে আমার হাত ধরে হেঁটে যেতে যেতে
আমার মুখ থেকে চুল সরাতে সরাতে কতোবার বলেছো
প্রকৃতি, কেন ঢেকে দাও চাঁদমুখ আমার তোমার অবাধ্য বাতাসে ” ?
অমিয় , অতঃপর, তোমার নীরব চোখের জল ভেজাবে বুকের জমিন,
কষ্টের ঢেউ বুকের দুকূল ছাপিয়ে আছড়ে পড়বে বুকের অতল তলে !
কতো জল, সেথা কতো জল..
অথচ একচিমটি জলে ভেজেনি আমার তৃষিত নীল ঠোঁট !
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!