• Uncategorized
  • 0

হৈচৈ কবিতায় পার্থ সারথি চক্রবর্তী

কুয়াশা ও আশা

কুয়াশা তো ছিলই, অনেকটা আকাশ জুড়ে,
গাছের পাতারা লুকিয়েছিল তার ভেতরে
তোর্ষা নিজেকে মুড়ে নিয়েছিল কুয়াশার চাদরে,
রাজপথ, মদনবাড়ি ঢাকা পড়েছিল
শুধু উঁকি দিচ্ছিল রাজবাড়ির চূড়া।
এমন সকালে রাতজাগা কুকুরের ডাক আর
কাগজওয়ালার সাইকেলের ঘন্টি-
আড়মোড়া ভাঙা সকালকে আচ্ছন্ন করে রাখে,
মায়াবী পেলবতা আর প্রাণোচ্ছল মোহমায়ায়-
যেন এক অদৃশ্য সার্কাসের তাঁবু।
সূর্যের আলোয় ধীরে ধীরে কেটে যায়-
সব আস্তরণ, জেগে ওঠে প্রাণের ঠাকুর,
তোর্ষায় জাল ফেলে অপেক্ষা করে-
গুণধর মাঝি, গলায় তার ভাটিয়ালি সুর।
কেউ চরে বসে স্বপ্ন দেখে, কাটবে মনের কুয়াশা।
ফেসবুক দিয়ে আপনার মন্তব্য করুন
Spread the love

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপি করার অনুমতি নেই।