গুচ্ছকবিতায় পরেশ নাথ কোনার

১। একটু ধরলে হাত

হৃদয়টা পারবো না দেখাতে খুলে
খুললে দেখতে পেতিস কত কথা
আছে জমে বরফের মতো ;
একটু ধরলে হাত,একটু দিলে উত্তাপ
জল হয়ে যেত গলে,হয়তো বা নদী হতো
সব ক্লেদ ধুয়ে দিতো।
ফুলে ফুলে ভরে যেত মনোনদী তীর;
একটু ধরলে হাত তরঙ্গ যত,
হয়তো বা হয়ে যেত স্থির।
বহে যদি সমীরণ পূব দিক হতে
ভাসিয়ে দিতাম ডিঙা নিষ্তরঙ্গ সেই জলে;
গলা ছেড়ে গাইতাম ভাওয়ালি গান,
তুই থাকলে পাশে ,ধরলে হাত
ভেসে যেতাম বিপদের যত কাঁটা
আনায়াসে দু পায়ে দলে।
আকাশে উঠলে চাঁদ ফিরতাম ঘরে
সারা রাত জেগে জেগে নিতাম
তুই আর আমি মিলে জ্যোৎস্নার ভাপ;
শুধু একটু ধরলে হাত,একটু দিলে উত্তাপ।

২। হতে পারি এডওয়ার্ড

যত ই আসুক বাধার পাহাড়
অনায়াসে পারি ডিঙোতে ;
এক ডুবে হতে পারি সাগর পার
যদি তুই থাকিস আমার সাথে।
আকাশ থেকে এনে দিতে পারি তারা
শত শত , কিম্বা যদি চাঁদ টাকে চাস ;
সব সুখকে দিতে পারি জলাঞ্জলি
খুশি মনে মেনে নিতে পারি বনবাস।
যদি তুই থাকিস আমার সাথে
হতে পারিস সিম্পসন ;
আমি হতে পারি অষ্টম এড ওয়ার্ড
পায়ে ঠেলে দিতে পারি সিংহাসন।
তুই যদি থাকিস আমার সাথে
দুজনে ভাসাবো জীবন নদীতে ভেলা;
ভেসে যাবো অনন্তের ডাকে
সাঙ্গ করে তুচ্ছ সব চাওয়া পাওয়ার খেলা।।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!