গুচ্ছকবিতায় প্রভাত মণ্ডল

উদ্ধার করো

আমি হাত বাড়ালাম
আমি বাঁচতে চাই
এ সমাজের কলুষতা থেকে
আমি এক বালিকা শিশু ।
তুমি হাত বাড়িয়ে
আমার হাতটাকে ধরো ,
আমি অসহায়
আমি লালসার শিকার
আমি যেন ভোগ্য বস্তু ,
আমাকে উদ্ধার করো ।
আজ আমাকে বাঁচালে
তোমার শিশুও বাঁচবে
ওদের লোভাতুর দৃষ্টি
আর লালসা থেকে
ভবিষ্যতে আগামীতে ।
তোমার হাতটাকে বাড়িয়ে
আমার হাতটাকে ধরো
আমাকে বাঁচতে দাও
আমাকে উদ্ধার করো ,
আমি এক বালিকা শিশু ।

মন পাখি

মন পাখি আজ একলা কাঁদে
এ দেহ পিঞ্জরে ,
ছারি যাবে কবে রহিবে না ভবে
এ মায়ার সংসারে ।
সকাল পেরায়ে দুপুর হইলো
ফিরলো গোঠের রাখাল ,
অস্তরাগের রঙধনুটায়
রঙ লেগেছে আকাল ।
চারিধারে আজ মানবের মেলা
আলোতে ভুবন ভরা ,
সে মেলার মাঝে প্রাণপাখিটা
দেহ পিঞ্জরে মোরা ।
থাকিতে চাহে না এ ভুবন মাঝারে
মিছে সম্পর্কের খেলায় ,
আজ সন্ধ্যা নামি আঁধার হলো
জীবন রথের মেলায় ।

আজ রজনী

আজ রজনী মাতাল করে
ভরিয়ে দিল মন ,
ওগো চাঁদ তোমার স্নিগ্ধসুধায়
বিভোর এদুনয়ণ ।
মেঘের দেশে মনের বাড়ি
কল্পলোকের গায় ,
সাগর জলে জ্যোৎস্না ঝরে
বন মহুয়ার পায় ।
চাঁদ তুমি জ্যোৎস্না নিয়ে
রাঙিয়ে দিলে মন ,
মোহন বাঁশি বাজায়ে কানু
ভরালো ত্রিভুবন ।

আধুনিক

ঐতিহ্য আজ মাটিতে লুটোপুটি
সংস্কৃতি আজ বড়ো বেমানান ,
মনুষ্যত্ববোধ আজ ধুঁকছে
ভারতবর্ষ ডুকরে ডুকরে কাঁদছে ।
প্রকাশ্য দিবালোক মেট্রোতে
অস্লীল আচরণে ছেয়ে যায় ,
রাজপথে ধর্ষণ হুমকি
বাক্যবাণে অস্লীলতা ছেয়ে রয় ।
প্রকাশ্য জনমাঝে অন্তরঙ্গতা
বিবেকের বাণী আজ লজ্জিত ,
কুরুচি পূর্ণ সব অঙ্গভঙ্গিতে
আধুনিকের পসরা আজ সজ্জিত ।
আধুনিক নামে আজ কাজে নয়
দ্বন্দ্ব-বিভেদ নীতি বেড়ে চলে ,
আধুনিক হতে গেলে ইতিহাস
ভুললে বন্ধু কভু নাহি চলে ।
আধুনিক হতে হবে আমাদের
ইতিহাসেরই সেই পথ ধরে ,
নতুবা আঁধার পথে ছেয়ে রবে
ভারতবর্ষ যুগ যুগ ধরে ।

 

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!