|| নারীতে শুরু নারীতে শেষ || বিশেষ সংখ্যায় নীতা কবি

সর্বংসহা নারী

আমরা নারী, আমরা সব পারি
লড়াইয়ের মাঠে পুরুষের মতো আমরাও জিতি-হারি

আমরা পারি ধরিত্রীর মতো সবকিছুকে সইতে
আমরা পারি জীবনের যতো দুঃখের ভার বইতে।

অন‍্যায় আর অনাচার যতো ছিলো আমাদের ভাগে
আপন মহিমায় জয় করেছি, আমরা এসেছি আগে।

আমরা পারি সীতার মতো সব সুখ ত‍্যাগ করতে
ঝাঁসির রানীর মতন আমরা পারি যে অস্ত্র ধরতে।

আমরা পারি স্বামীর সোহাগে সোহাগ-সিঁদুর পরতে
মাতঙ্গিনীর মতন আমরা পারি প্রতিবাদ করতে।

সংসারের শুভকামনায় আমরা আলপনা এঁকে দিই
স্বামীর কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বোঝা ভাগ করে নিই।

লক্ষ্মী রূপে নারায়ণ পাশে সুধা বিতরণ করি
মহিষাসুরকে বধ করে আমরা মুণ্ডমালাও পরি।

একাধারে আমরা কন‍্যা, ভগিনী, ভার্যা এবং মিতা
মানবজাতিকে গর্ভে ধরে হয়েছি তাদের মাতা।

পুত্র-সন্তানের মুখ দেখলে শুনি গৃহী ধন‍্য হয়
অতি তুচ্ছ কন‍্যা-সন্তান নাকি পুত্রসম নয়?

এই কথাটা ভুললে কি করে, পুরুষ বুদ্ধিমান?
প্রকৃতির সাথে পুরুষ মিলনে সৃষ্টি যে বহমান।

গার্গী, মৈত্রেয়ী, অপালার মতো মহীয়সী সব নারী
ইতিহাসে স্থান পেয়েছেন তারা, আমরা স্মরণ করি।

নারীর হাতের কোমল পরশে জুড়াই সকল জ্বালা
সেবা-শুশ্রূষা, রন্ধন করে তুলে দেয় অন্নের থালা।

দ্রৌপদী, সীতা, সাবিত্রী, দময়ন্তী, মন্দোদরী, গান্ধারী
আমারই দেশের মহান কন‍্যা, তাঁদের স্মরণ করি।

আমার ঘরের সব মেয়েরাই সবাই হবে মহান
সিন্ধু হয়ে, হিমা হয়ে রাখবে দেশের মান।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!