গুচ্ছ ছড়া-কবিতায় মালিপাখি

১। আমি

আমি চিলেকোঠা ঘরে থাকি ।
আমি রূপকথা পাড়া আঁকি ।
আমি ঘাসফুল, আমি তারা ।
আমি চারাগাছ, আপনারা —
আমি একরাশ ভালোবাসা ।
আমি কাছে এসো প্রিয় ভাষা ।
আমি ভাষাপথ বুকে জুড়ি ।
আমি রাঙামাসি, আমি ঘুড়ি ।
আমি একরোখা জেদি ঘোড়া ।
আমি আলো-আঁধারিতে মোড়া ।
আমি কাঁচপোকা জুঁই নদী
আমি মাছরাঙা, কেউ যদি —
আমি জলপরী, নাচ শেখো ।
আমি ভাঙাতরী,ভালো থেকো ।
আমি চিঠি ঘর, চিঠি, চিঠি –
আমি প্রজাপতি, গিরগিটি ।
আমি হই হই ছেলে বেলা ।
আমি লুকোচুরি,লুডো খেলা ।
আমি আয় আয় হাঁসবাড়ী ।
আমি এই ভাব,এই আড়ি ।
আমি ঘাসফুল, আমি তারা ।
আমি চারাগাছ, আপনারা -।

২। উপহার

ভাষা বুক থেকে বুকে ওড়ে –
ভাষা জেগে ওঠে ধান ভোরে ।
ভোরে আঁকা বাঁকা পথ ছোটে –
ভোরে পাখিদের গান ফোটে ।
ফোটে নদী নদী ঢেউ গুলো –
ফোটে আকাশের নীল ধুলো ।
ধুলো সারি সারি গাছ আঁকে –
ধুলো রাজা বলে কাছে ডাকে ।
ডাকে পারিজাত মন, পারি –
ডাকে মাছরাঙা আঁকা বাড়ি ।
বাড়ি সারাদিন মাতে কাজে –
বাড়ি আলপনা দিয়ে নাচে ।
নাচে হুসপাখি, নাচে রবি ।
নাচে গানপরী, নাচে কবি ।
কবি ঘেমে ওঠে তবু চলে –
কবি ঢেউ ছুঁয়ে ছুঁয়ে বলে – !
বলে আহা আজ আমি কেযে –
বলে ভাষাটাকে ঘষে মেজে ।
দেবো উপহার কাকে ? এসো।
দেবো তোমাকেই। ভালো বেসো ।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!