কবিতায় মাহামুদাল হাসান

বাড়ি লালবাগ,মুর্শিদাবাদ , পেশা শিক্ষকতা,নেশা কবিতা। শিক্ষাক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিগত ৫-ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রদত্ত "শিক্ষারত্ন" সম্মাননায় ভূষিত হন।সপ্তম শ্রেণি থেকে কবিতা লেখা শুরু।সময়ের সাথে সাথে পূর্ণতা লাভ করে কলম।বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় লেখা অব্যাহত রয়েছে।এখন অব্দি যৌথ কবিতা সংকলন গুলির মধ্যে – কাব্যমঞ্জরী,যখন একলা আকাশ, কালবেলার প্রতিচ্ছবি,আবেগের ঠোঁট,কাচের জানালা,আমার আকাশ তোমার নীলাভ আবরণে,মহুলের নেশা উল্লেখযোগ্য।কাব্যগ্রন্থ প্রকাশের অপেক্ষায়।কাণ্ডারী সাহিত্য পত্রিকার সভাপতি।

বন্ধ শ্বাসের স্বরলিপি

ভালোবাসার নদীকে কোলে নিয়ে
অনির্বাণ পাণ্ডুলিপির মতো প্রহর গুনছি
আগুন আর কী পোড়াবে আমায়!
শিখিয়েছি স্বপ্ন দেখার বীজমন্ত্র
যাতনার বিভায় শিখিয়েছি গাছ হতে
পৃথিবীতে এলে তুই কিন্তু গাছ হবি
ভালোবাসার আঁচলে ঢেকে রাখবি ধরাধাম
এলোচুলে যখন মেঘ উড়ছে তখন আমি
ইস্পাত মুখে রক্তের রঙে
আঁকছি জিজ্ঞাসা চিহ্ন
সেই জিজ্ঞাসার দাবদাহে পুড়ছি তো পুড়ছি
আফশোষ শুধু!
মায়ের ন্যায্যতায় দাঁড়ি পড়ে গেল।
অস্থি মজ্জা ও করোটির উন্নত শায়রে
লালনের গান জাগেনি
মানব সার্কাসের রঙিন থাবায়
কৃষ্ণচূড়ার লাল আভায় সেঁকে নিচ্ছি
আঁতুড় গন্ধ; বাঁচার মোহে অন্ধ গলিতে
আক্ষেপ আর নৈঃশব্দ্য ঝরে পড়ে
তীব্র ফুৎকারে। শুধু নিঝুম বিষাদে
বন্ধ‌ শ্বাসের স্বরলিপি লিখে গেলাম।
তুই আর গাছ হতে পারলি না।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!