কবিতায় স্বর্ণযুগে মানস কুমার মাইতি

নির্মাণ

অসংখ্য নীল ছুঁয়ে পরিধির কাছে চেয়েছি নির্মাণ , জীবনকে গভীর অনুভব করতে গিয়ে ভালোবেসেছি শূন্যতাকে । কোনোদিন সম্পূর্ণ করতে পারিনি নিজের ছবিকে , বারবার খুলে পড়েছে রঙ ও নিজস্ব ভাঙচুর । হলুদ পাখির গ্রীবার মতো অস্থির হচ্ছে নিলয় । আপন মনে পাঁজরে তৈরি করি নরম মাটির পুতুল , কখনো কখনো তাকে ভিজিয়ে দিই কান্নায় । মানুষের এতো সুর , রঙিন হওয়া যে হৃৎপিণ্ডকে ঘিরে তা থেমে গেলে অদৃশ্য হয় প্রিয়জন ।কাকের মতো কালো হয়ে ওঠে উঠোন ‌। হেমন্তের গন্ধ ছুঁয়েও চুপ থাকে নির্মাণ । অসুখ নিয়ে বসে থাকি একা , রেলিং আঁকড়ে লতানো গাছের চেনা ফুলটি শুধু মুচকি হেসে শুয়ে থাকে বিছানায়। তার গর্ভকেশর ছুঁয়ে আমি আবার ডুবে যাই নির্মাণে।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!