কবিতায় মহুয়া দাশগুপ্ত

শিক্ষকতা করেন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বিষয়ে গবেষণা করে ডক্টরেট ডিগ্রি পেয়েছেন। একাধিক সংকলনে তাঁর গল্প ,কবিতা , প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। এই বছর অরণ্যমন প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর একক গল্প সংকলন —‘ কথানদীর কূলে’। গল্প বলার ঐতিহ্য নিয়ে বর্তমানে কাজ করছেন তিনি।

চিঠি

আমি প্রতিদিন কবিতার ফুল ফোটাবো,
প্রতিরাতের কান্নার শিশিরে ভেজা
সেই কবিতার ফুল পাঠিয়ে দেবো তোমাকে,
ভোরের শুভেচ্ছার মতো!
এই ফুল ছুঁয়ে যাবে তোমার জ্বরতপ্ত কপাল,
তোমার এলোমেলো চুলে হাত বুলিয়ে
আমার কবিতা তোমার বুকে মাথা রাখুক!
যেন অষ্টাদশী মেয়ের নব অনুরাগ!
অনেক মেঘবাদলের বিরহ ঘেরা আমার এই
ভালোবাসার নতুন সূর্য
নতুন ছন্দে লিখতে থাকুক
আমাদের কাব্য!
এক একটা দূরত্ব এসে
নতুন করে কাছে আসার পথে আল্পনা দেয়!
তুমি তো সেই কতদিন ধরে এঁকেছো ধানের ছড়া,
লক্ষ্মীমন্ত পায়ের চিহ্ণ!
আমারই সেইভাবে ফেরা হয় নি কখনো,
আজ এই ঘোর ঘনঘোর অন্ধকারে
আমার মনে শুধু তোমার মুখচ্ছবি !
ভালোবাসি, সেইভাবে বুঝি নি আগে
যতটা এই দূরত্ব বোঝালো!
আমি তোমাকে চাইছি , যেমন করে
কৃষ্ণ চায় পঞ্চম স্বর,
কবি চায় কবিতা,
যোগিনী তাঁর রুদ্রাক্ষ,
সুর চায় ভাষা!
আমার কবিতার ফুলে ভরাট করছি আমার
সবটুকু ভালোবাসা , শুদ্ধ হবো ধীরে ধীরে।
ততদিন একটু একটু করে সেরে ওঠো—
চিরসখা—তুমি!
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!