মার্গে অনন্য সম্মান খুশী সরকার (সর্বোত্তম)

অনন্য সৃষ্টি সাহিত্য পরিবার

পাক্ষিক প্রতিযোগিতা পর্ব – ২৩
বিষয় – নবান্ন

আন্তরিক মিলনোৎসব

গ্রাম বাংলার চিরন্তন অভ্যস্ত সংস্কার নবান্ন
উৎসবের মূল উৎস অন্যতম আমন ধান,
কৃষিনির্ভর জীবনে আন্তরিক আতিথেয়তায়
পাড়ায় পাড়ায় জাগে আনন্দমুখর বান।
বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠের রোদে পুড়ে তাপদগ্ধ শরীর
আষাঢ়-শ্রাবণের জলধারায় ভিজে ভিজে,
ভাদ্র আশ্বিনের শারদ হাতছানির উপেক্ষায়
আশা-আশঙ্কায় কৃষক নির্ঘুম চোখ বোজে।
কার্তিক মাসের কাঁচা পাকা ধানের সৌন্দর্যে
হলুদ সবুজের বৈচিত্র্যে উদ্বেল চাষির মন-প্রাণ,
ক্ষেত ভরা সোনালী ফসলের স্বপ্নে বিভোর
হতদরিদ্র কৃষকের চোখে শুধু ধান আর ধান।
নবান্ন তাই ধনপ্রাচুর্যের দেবী লক্ষ্মীর পূজা
চিরান্নহীন কৃষকের আবেগ-উচ্ছ্বাসের পার্বণ,
পূর্ণ অঘ্রাণে নতুন ধানের চাল গুড়ের পরমান্ন
অগ্নি,কাক ব্রাহ্মণ পূর্বপুরুষ পরমাত্মীয়ে নিবেদন।
নবান্ন উৎসবের আনন্দে বন্ধ মাঠের কাজ
ফসলে ভরা মরাইয়ের পাশে মাঙ্গলিক আলপনা,
লেপানো ঝকঝকে উঠোনের আলপনার আসনে
পরিবার আত্মীয়ের পরমান্ন গ্রহণের খুশি ধরে না।
ভরা অঘ্রানে নবান্নের ঘ্রাণে চিরদরিদ্র চাষি
ভুলে যায় নিত্যদিনের বুভুক্ষু যন্ত্রনা,
আদর অভ্যর্থনা আপ্যায়নে স্বপ্ন এঁকে চোখে
আগন্তুক অতিথি সৎকারে আনন্দে আটখানা।
দারিদ্র্যের বিচ্ছিন্ন জীবনে নবান্নের শুভদিনে
পারস্পরিক খুশির মেজাজে উৎসব পালন,
অভাব অভিযোগ বিবাদ ব্যর্থতা সব ভুলে
আন্তরিকতায় লক্ষ্মী দেবীর পুজো আয়োজন।
নব অন্নে নব ব্যঞ্জনে নতুনের মিষ্টি ঘ্রাণে
হৃদয়ের অচ্ছেদ্য বন্ধনে বাঁধা নবান্ন উৎসব,
নতুন অন্ন গ্রহণের আগে দেবতার নিবেদনে
পরিবারে পরিবারে পূর্ণ নির্মল খুশির কলরব।
শস্য উৎসবের নীতি-নিয়ম অঞ্চল ভেদে ভিন্ন
তবু মূলে আছে নতুন চালের অন্ন গ্রহণ,
কোথাও কাকবলি বীরবাশ অন্নপূর্ণা পুজো
কিংবা শ্রাদ্ধানুষ্ঠান দ্বারা পূর্বপুরুষে অন্ন অর্পণ।
কোথাও ধানের মন জুটিতে গৃহসজ্জা
কোথাও গৃহপ্রাঙ্গনে বিচিত্র আলপনার রেখা,
কোথাও পূজা শেষে নতুন চাল বেটে সুস্বাদু খাবার
কোথাও উৎসবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পাই দেখা।
বিচিত্র নিয়ম-নীতির মাঝে এক অনাবিল আনন্দ
গ্রামবাংলার কর্মব্যস্ত জীবনে পারস্পরিক মিলন,
শহুরে জীবনের দমবন্ধ কৃত্রিমতার পাশে
সহজ হৃদয়ানুভূতির এক অপূর্ব সমন্বয় সাধন।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!