দিব্যি কাব্যিতে জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়

X Y Z vs নাড়ুগোপাল

X খুব ভালো বলে গান গায় ব্যাট করে অপরার মন বোঝে।
Y – এর মাথায় সাইনি চুল চিবুকে নন সাপোর্টিং নুর
সে ভালো কবিতা লেখে বিশ্বসাহিত্য কোট করে।
Z- এর শরীর বেশ টানটান ম্যাগনেট কেয়ারফুল
কেয়ারলেসের আলগা চটক।
অথচ নাড়ুগোপাল গোপালের মতোই অতি সুবোধ বালক।
তার বাস্তব বোধ কম।চালাকি জানে না।সে গান গাইলে কুকুর ডাকে।
ক্রিকেট সে খেলে না অপরার দিকে তাকাতেও তার ভয়। তার চুল ন্যাতানো।
সরু একখানা গোঁফ আছে বটে তবে তা
মেল হরমোন তাড়িত কিশোরীর চেয়ে পুরুষালি নয়।
মা ছাড়া তাকে কেউ কোনো গুরুত্ব দেয় বলে মনে হয় না।
কিন্তু সবাই তাকে দিয়ে নানান কাজ করিয়ে নেয় তাও আবার
সেই কাজগুলো যেগুলো কখনোই নাম যশ বহন
করে না।
আকর্ষণীয়া কেউ তাকে দেখে আকর্ষিত হবে তা ভাবা কঠিন।

এ হেন নাড়ুগোপালকে এক্স ওয়াই জেডের সঙ্গে লড়িয়ে দিল একটা নাম?
এরিনা জোড়া নাম নাকি গন্ধ? বা কাল্পনিক স্পর্শ? স্বপ্নায়ন ….. স্বপ্নায়ন ….. …
এ হেন দুর্বল নাড়ুগোপাল কিন্তু হার মানার জন্য লড়ে না তার অস্থি মজ্জা পেশি অপরাজেয়।

একের পর এক প্রতিপক্ষ লুটিয়ে যায়…… শেষ জন ঋজুদেহ অটল।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!