কবিতায় হরেকৃষ্ণ দে

স্বীয়

আমার ভেতর এক রাতচরা সাপ শরীরের উত্তাল গহ্বরে বেঁচে থাকে৷
জলের জন্য কোন চিৎকার নেই,চামড়ার আস্তিনে অস্থিমজ্জা কাটতে থাকে অনর্গল৷
মাঝে মাঝে শরীর ছেড়ে তাড়াতে চাইতাম কিন্তু নিধু বাগানের কথা মনে পড়লে কেমন যেন লাউমাচার মত ঝুলে থাকত বাতাসের অক্সিজেন ফুলিয়ে৷
নিতান্ত দুর্দিনে অন্ন সংস্থানের গুমটির পিছনে অহংকারের খোলস ছাড়িয়ে আসতাম অন্ধকার ঝোপের মত সংসার ফেলে৷
নিরন্ন মনের সাথে একা একা ঘাস কাটতে থাকতাম,
জীবন বিরক্তি এক একটা রাত সামলে দিত আমার ইতিহাস৷
আমার ইতিহাস হিদাস্পিসাসের যুদ্ধ জানে না,
জানে গতরের জ্বালাময় স্বেদ আর লণ্ডভণ্ড শরীরের ইতিহাস৷
স্বীয় মাঠে ঘাসের সবুজ সুঁচালো ডগায় নিজেকে বিঁধতে বিঁধতে আলের ক্ষয়ে যাওয়া পথে গল গল ঘামে ফুটে ওঠা ঘাসফুলের মত
অজস্র তারাদের সাথে জেগে থাকতাম৷
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!