গদ্য কবিতায় গৌতম বাড়ই

ধ্বংসবীজ

আমার এক তেপান্তর কথা হচ্ছিলো
তোমার জল বিষুবের সৈকত আলিঙ্গনে
এক সমুদ্দুর মেঘলা বিকেল চিড়িয়াটাপ্পুর
আদিম অমন মন শূন্যতায় থমথম
হাড়গোড় বের করা গাছের কঙ্কাল
নোনাজলে উঠে উঠে নুনছাল বীভৎসতম
শুনশান নির্জন নীহারিকার অতলে
সাগরের শব্দকথা ঘন অন্ধকার ঝিঁঝিঁর ঘন্টায়
জল দূরের দ্বীপে নাকি বুনো মায়াবী হরিণদল
সবুজ এখন ঘনকালো সমুদ্র ফেনায়
ফসফরাসের টুকরো আলো
তোমার বুকের মধ্যে অত হিংস্রতা
সেই মায়াবী আদিম অন্ধকারে হরিণের মাংস
ভোজ উৎসবে শামিল এক দঙ্গল হিংস্র প্রাণী
তোমার ভালোবাসা তারপর পিছলে গেছে
আমার বুকের ধুকপুক শ্বাসে শতবার
তোমার অনন্ত যাপনে
যখন মৃত্যুর থাবা এগিয়ে আসে দরজার গোড়ায়
একটা বনমুরগীর পালকেও ভালোবাসা খোঁজে
কুটিল ভঙ্গীমার চাঁদগোখরো
ভালোবাসা বহুদিন ছেড়ে চলে গেছে
সত্যের আর বিশ্বাসের মৃত্যু ও হবে
হাত ধরাধরি করে হারাকিরি
আহ্নিকগতি স্তব্ধ ধ্বংসের বীজফুঁড়ি
যতদিন কুর্সিতে কুর্সিতে চিত্রনাট্য অভিনয়
শেষ ধ্বংসের কয়েক ইঞ্চি মুহূর্ত সময় বাকি
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!