নাট্য-নাটিকায় দেবাশীষ মণ্ডল (পর্ব – ৩)

ভেক করোনা

তৃতীয় দৃশ্য
(আলো জ্বলতেই যীরাহিম বলে)

যীরাহিম।পাউচে, পাউচে শিক্ষা আজ বিক্রি হবে। আপনার কয় পাউচ লাগবে অর্ডার দিন বাবু অর্ডার দিন।কয় বাবুরা , দাদা মশাই রা আপনারা কিছু বলছেন না কেন!ও বুঝেছি আপনারা তো বলবেন না আপনারা তো চুপ থাকবেন।শুধু দেখবেন আর খুশি হবেন মনে।আর হাততালি দিয়ে বলবেন ভালো খুব ভালো হাঃ হাঃ হাঃ।

(ব্রাম্ভন এসেই বলে)

ব্রাম্ভন।ভালো বলবে না তো খারাপ বলবে এ্যা! আমি বলছি সবাই ভালোয় বলবেন ওখানে সব আমার জজমান আছে।আমি সবাইকে চিনি ও জানি।বলি তুর মত নাকি জাতের ঠিক নাই, আর চলে আসলো বুঝাতে।সব ভালো হবে।আমি আছি পূজাপাঠ করে সব ভালো করাই দিব।সব দেবদেবী কে আমার চেনা আছে, সব পরিচিত মানুষ।

যীরাহিম। মানুষ মানে!দেব,দেবীও আবার মানুষ হয় হাঃ হাঃ হাঃ।কি আর বলবো!

ব্রাম্ভন।বলার কি আছে এ্যা আমাদের ধর্মটা হল আলাদা ধর্ম।দেখেছিস কোনদিন, দেব দেবী গুলো কেমন প্রিতিমা,প্রিতিমা লাগে।যেন জ্যান্ত মানুষ মনে হয়। যেন আমার দিকেই তাকিয়ে আছে।কেমন যেন দ্যূতি বের হয়।কেমন যেন জাগরন্ত হয়ে যায়।

(বাউন্ডুলে এসে বলে)

বাউন্ডুলে।হ কেমন যেন ঘাম বের হয় যেন তেল তেলে।তবে আমার কাছে তেল নাই বুবু আমার কাছে আছে শুধু, কি জল?(দর্শক কে জিজ্ঞেস করে)।হা লবন জল যত রাখবেন তত রোগ দুরে যাবে।

ব্রাম্ভন।আর পূজা পাঠ যত করাবেন তত আমার…!না না আপনাদের শরীর,স্বাস্থ্য,মন ভালো থাকবে।

যীরাহিম।আর কোন কর্ম করার দরকার নেই নাকি বলেন ব্রাম্ভন মশাই?

ব্রাম্ভন। ফাজলামি করিসনা, ঠাকুর দেবতা নিয়ে । এখনও চাঁদ,সূয্যি উঠছে ঐ ঠাকুরের জোরে।যদি দেব দেবী গুলো অনশনে বসে ত বুঝবি কত রাতের পরে কেমন সকাল আসে সকাল।

বাউন্ডুলে।তবে লবন জলে কি হবেক। চাঁদ,সূয্য উঠা, ডুবো বন্ধ হয়ে গেলে ,লবন জলে ত সকাল হবে নাই।যদি রাত থাকে ,ত আমি ঘুমিয়ে যাব।ই মা তবে কি হবেক!

যীরাহিম।কি আর হবে এ ভাবে জেগে ঘুমিয়ে থাকার থেকে আরও ভালো হবে চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে থাকা।প্রতিবাদ যে খানে ঘুমিয়ে থাকে সেখানে কখনো সকাল হয়না বন্ধু।আসে না কখনো ভোর। রাত্রির কাল অন্ধকারে নিশিযাপন করে স্বপ্ন,বিবেক, মনুষ্যত্ব।আর চেতনা সকলকে ঠেকে ঠেকে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়বে বন্ধু ।আর কেউ ডাক পেড়ে বলবেনা উঠো ,জাগো এবার সময় হয়েছে সবাই জাগো।
( চলে যায়)

ব্রাম্ভন।জাগবে না আবার এটে গ্রাম , যখন ঐ টে(প্রাতক্রিয়া) লাগবে দড়ফড়ায়ে,ছোট্ খুলে ছুট দিবেক।রাত দিন মানবে নাই ,জানিস!জানবেক কি করে ঠেলায় কি কোনদিন পড়েছে যে জানবে। আমি তো ব্রাম্ভন মানুষ আমি জানি কি ঠেলা।রিচ তেল মশলা কি খেয়েছিস কখনো!শেষে ঐ লবন জল খেয়ে খেয়ে শরীরকে ঠিক রাখতে হয়। শুধু ঐ লবন জলের ভরসাতেই এত খেতে পারি। আমার একমাএ ভরসা ঐ লবন জল।

(চলে যায়)

বাউন্ডুলে,।লবন জল। আমার কাছে সব সময় থাকবে,এই লবন জল যার দরকার নিয়ে যাবেন বুবু নিয়ে যাবেন।আমার কাছে পাবেন বুবু ল-ব-ন জল।

(বোতল দেখিয়ে ফ্রিজ হয়) আলো নিভে।

ক্রমশ…

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!