ক্যাফে কাব্যে দেবারতি গুহ সামন্ত

রুমালটা কাঁদছিল

ফুল তোলা নক্সীকাটা হাল্কা গোলাপি রুমালটা,
অযত্নে,অবহেলায় পড়েছিল দরজার এককোনে।
এখানেই শেষ বারের মত দেখা গেছিল নীতাকে,
যখন সূর্যটা ঢলে পড়ছিল পশ্চিম আকাশে।

নীতার সো কলড্ বয়ফ্রেন্ড আকাশ,
হাই-ফাই সোসাইটির স্পয়েলড চাইল্ড।
কিন্তু নীতার ভালোবাসায় বদলেছিল ধীরে ধীরে,
অবশ‍্য সত‍্যিই বদলেছিল কী?

নীতা গরীবের ঘরের লড়াকু মেয়ে,
পাত্তা দিত না কোন ছেলেকেই।
আকাশ ও তাদের মধ‍্যে একজন,
ওদের ফার্স্ট মিটিংটা ঝগড়া দিয়ে শুরু।

কি করে যেন নীতার প্রেমে পড়ে যায় আকাশ,
বারংবার ক্ষমা চায় নীতার কাছে।
নীতার পাথর মন গলতে থাকে আইসক্রিমের বরফের মত,
মোমের মত গলে যাওয়া নীতা আকাশের প্রেমে দেয় ডুব।

তারপর আসে সেই নির্জন সুনসান দুপুর,
নীতাকে কৌশলে আউটহাউসে নিয়ে আসে আকাশ।
সঙ্গে ছিল ওর বন্ধুরা,মদের নেশার চুড়,
নীতাকে অবাক করে আকাশ পৈশাচিক অট্টহাসিতে ফেটে পড়ে।

তারপর একে একে শুরু হয় নীতার ওপর নারকীয় অত‍্যাচার,
আদিম লালসায় উন্মত্ত পশুর দল ছিড়ে ফেলে নীতাকে।
সহজেই বেরিয়ে যায় নীতার প্রাণ,
দরজার এককোনে ওর ফুলতোলা রুমালটা কান্নায় ভেঙে পড়ে।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!