সাহিত্য ভাষান্তরে বাসুদেব দাস

পিতার প্রার্থনা

নীলিম কুমার
মূল অসমিয়া থেকে বাংলা অনুবাদ 

ও আমার মেয়ে
এক ছটাক রূপোলি আলো যখন
রূপোলি করবে আমার লোম এবং চুল
ও আমার মেয়ে ধরে ধরে আমাকে রাস্তা পার করাবে তো
পক্ষাঘাতে যদি বিকল হয়ে পড়ে আমার দুহাত পা
ও আমার মেয়ে
হুইল চেয়ারে বসিয়ে বেড়াতে নিয়ে যাবে আমাকে
চোখ যদি ভরে যায় মেঘে ও আমার মেয়ে
ছাপা অক্ষরগুলি যদি ঝাপসা দেখি ও আমার মেয়ে
পড়ে শোনাবে কি আমাকে নতুন কবির একটি দুটি কবিতা।
তোমার রক্তে আমি থাকব কি ও আমার মেয়ে
তোমার বুকে আমাকে যত্ন করে রাখবে ও আমার মেয়ে
আমার মুখের লালা মুছে দেবে
আমার আঙ্গুলের গাঁটগুলি টেনে দেবে ও আমার মেয়ে
রসুন তেলে আমার পায়ের পাতায় ঘষে দেবে কি
যদি ঠান্ডা হয়ে যাই
তোমার জ্বরে কত রাত উজাগরে ছিলাম ও আমার মেয়ে
ভুলে যাবে নাকি?রক্ত বিক্রি করে এনেছিলাম তোমার কাছে
আপেল আঙ্গুর ও আমার মেয়ে তিনচাকার একটি সাইকেল
স্কুলের ব্যাগ ও আমার মেয়ে ফ্রকের কাপড় বিস্কূটের প্যাকেট
চুলের ব্যাণ্ড ও আমার মেয়ে কাঁটা বেছে মাছ গলা
চেপে পার ও আমার মেয়ে
জুতো কেনার জন্য ও আমার মেয়ে এঁকে নিয়েছিলাম
তোমার একটি পা
এদিকে ডেকেছিলে ও আমার মেয়ে ওদিকে ডেকেছিলে
ও আমার মেয়ে
হাসিতে ছিলাম আমি চোখের জলেও ছিলাম আমি
মনে রেখেছ
দূরের সাগরে ঢেউগুলিকে তোমার কথাই
জিজ্ঞেস করেছিলাম
কাছের বাতাসকে তোমার কথাই জিজ্ঞেস করেছিলাম
ও আমার মেয়ে
কিছুক্ষণ না দেখলে কীভাবে ছটফটানো ও আমার মেয়ে
শীতের রাতে বারবার লেপের কাঁটা বিঁধল তোমাকে
ও আমার মেয়ে
আমার রক্ত বেরিয়েছিল ও আমার মেয়ে

এক ছটাক রূপালি আলো যখন ও আমার মেয়ে
রূপালি করবে আমার লোম এবং চুল
ঘুম পাড়িয়ে দেবে আমাকে ও আমার মেয়ে
ঠান্ডা করবে আমাকে ও আমার মেয়ে
শ্মশানে দাহ করে এসে আমাকে ও আমার মেয়ে
বাঁচিয়ে তুলবে আমাকে তোমার বুকের আলমারি খুলে
ও আমার মেয়ে ও আমার মেয়ে ও আমার মেয়ে

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!