মার্গে অনন্য সম্মান বিমলচন্দ্র গড়াই (সর্বোত্তম)

অনন্য সৃষ্টি সাহিত্য পরিবার

পাক্ষিক প্রতিযোগিতা পর্ব – ৩৬
বিষয় – বসন্ত / বসন্ত বিরহ

আমার বসন্ত

আমার বসন্ত পশ্চিম দ্বারে আঘাত হানে
যেথায় জীর্ণ কূটীরে শুকনো পাতা মর্মর ধ্বনি তোলে
যেথায় ছিন্ন বসনে আমার বাসন্তী লজ্জা ঢেকে মরে!
তোমার বসন্ত আজই ফাগুন হাওয়ায় দোলে
জাগ্রত সে তোমার দ্বারে দ্বারে
তোমার বসন্তে শিমুল পলাশ হাসে
মলয় বাতাসে পুষ্পরাশির সুবাস
আমার বাসন্তী খিদের জ্বালায় লুটায় ধুলোর পরে!
তোমার দেহে বাসন্তী রঙের সাজ
নূপুরের ধ্বনি ছন্দ তোলে আলতা পরা পায়
আমার বাসন্তী গরম পিচে রাজপথ গড়ে তোলে
কৃষ্ণচূড়া দেয় না উঁকি লজ্জায় মুখ ঢাকে!
তোমার কণ্ঠে রবীন্দ্র নজরুল বসন্তের রূপকথা
আবীর ছড়িয়ে বাতাস রাঙাও নৃত্যের তালে তালে
আমার বাসন্তী কাগজ কুড়িয়ে বাঁচার স্বপ্ন দেখে।
তোমার দেহে নবযৌবনের সঞ্চার যখন ঘটে
আমার বাসন্তী যৌবন হারিয়ে অকালে বুড়িয়ে মরে
স্পন্দন যেথায় ছন্দ তোলে চাঁদের স্নিগ্ধ আলো
আমার বাসন্তী কুঁকড়ে থাকে মানুষ হয়ে আজও !
তোমার আমার ফারাকটা বুঝি হবে না কোনদিন ছোট
তাইতো তোমার পলাশ ফুটলেও
আমার বাসন্তীর পলাশ আজও মৃত!
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!