কবিতায় পদ্মা-যমুনা তে আনোয়ার রশীদ সাগর

কবিতা না-ছায়া

আজো কাঁঠালের ঝরা পাতা খুঁজি,
খুঁজি আজো সেগুনের হলুদ পাতা
যেখানে ছিল তোমার প্রেমের আঁচড়
যেখানে ছিল তোমার মায়ের উঠোন।
আজো দূর্বাঘাসের চত্বর খুঁজি,
খুঁজি চিৎহয়ে শুয়ে আকাশ দেখা
যেখানে ছিল তোমার থৈথৈ জল
যেখানে ছিল নিষিদ্ধ মনোবল।
কেউ জানে না শুধু তুমি জানো,
তোমাকে নিয়েই আমার মেঘসাঁতার
তোমাকে নিয়েই আমার সারা দুপুর
তোমাকে নিয়েই আমার স্মৃতিচারণ।
জানই তো, তোমার নাম দিয়েছি নদী;
নদী নিয়েই পায়ে হাঁটা সকাল- বিকাল
গন্ধময় হরেক রকম মেঘলা আকাশ
নদীর বুকে এলোমেলো স্রোত আঁকা
নৃত্য করে-নিত্যদিনই কবিতা লেখা।
ছিল,মজার খেলা, সেই কাঁঠালতলা,
সেই ঝরে পড়া ঢাউস সেগুন পাতা;
ঢাউস-ঢাউস স্মৃতি কথা তোমার-আমার
সারাবেলা, সারাবেলায় তোমার খাতা।
ভাবনাগুলো-বিষন্ন দুপুর আষাঢ়গরম;
শ্রাবণঝরা জলথৈথৈ বৃষ্টিবিলাস
আকাশের শুদ্ধজল- বিলের ঘোলাজল
স্মৃতিপটে ঝরে পড়া সমতল।
আজও খুঁজি হারানো দিন- হারানো ময়ূর
আজও খুঁজি বৃষ্টিসকাল-বৃষ্টিদুপুর
আজও খুঁজি কাঁঠাল ছায়া-সেগুন ছায়া
আজও খুঁজি সেই যে পুকুর-তোমার নূপূর
আকাশ জুড়ে তোমার ছায়া-তোমার মায়া।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!