সাপ্তাহিক ধারাবাহিকে অনিরুদ্ধ গোস্বামী (পর্ব – ২৪)

অদৃশ্য প্রজাপতি

তিন মাস পরের কথা
যেকোনো নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ এর প্রথম তিন মাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এতে বোঝা যাবে যে এটি মার্কেট এ দাঁড়াবে কি না ?
নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ ক্যাটাগরি তে আমরা একদম উপরে। যা আমরা আশা করেছিলাম তার থেকে অনেক গুন্ বেশি আমরা ব্যবসা করছি। সবচেয়ে বড় ব্যাপার আমাদের প্রতিযোগী কোম্পানির সেল নেমে তলে এসে ঠেকেছে। ডিসকাউন্ট বাড়িয়ে দিয়েও ঠেকাতে পারছে না। সাইন্টিফিক ডিসকাশন আর আমাদের মার্কেটিং এর প্ল্যান ডাক্তার রা খুবই প্রশংসা করেছেন।
ম্যানেজিং ডিরেক্টর খুব ই খুশি। আমাকে প্রমোশন দিয়ে “AMA ” (এশিয়া ,মিডল ইস্ট ,আফ্রিকা )রিজিওন এর মার্কেটিং হেড করে পাঠাতে চান।কয়েকদিন আগে নিজে টেলিফোন করে আমাকে তৈরী থাকতে বলেছেন
খবর টা নিয়ে বিন্সি এলো বললো বস “অভিনন্দন” আপনি কবে যাচ্ছেন সিঙ্গাপুর। মেইল এসেছে। আমাকে কপি মার্ক করা আছে।
নীল : তাই ,মেইল এসেছে নাকি ,তুমি খুশি হওনি ?এই সাফল্যে সমান ভাগিদার তুমিও।
বিন্সি : হা বস আমি খুশি , চোখে জলকণা চিক চিক করছে। কিছুক্ষন চেয়ে রইলো চোখের দিকে আমি চোখ নামিয়ে নিলাম। আর সে দাঁড়ালো না ডাকলাম তাকে তবু ও !
আথিরা কে জানানো যেত যদি।
রাতে ব্যালকনি অনেক রাত অব্দি বসে রইলাম। কেরালা তে তো আর কয়েকদিন। মিস করবো অনেক কে আর কিছু এইরকম মুহূর্ত আর আমার এই ব্যালকনি- একাকিত্বকে আর ব্যাক ওয়াটার কে। হয়তো সবাই থাকবে হারিয়ে যাবে এই মুহূর্ত গুলো।

‘আমাকে খোঁজো না তুমি বহুদিন- কতদিন আমিও তোমাকে
খুঁজি নাকো;- এক নক্ষত্রের নিচে তবু- একই আলো পৃথিবীর পারে
আমরা দুজনে আছি; পৃথিবীর পুরনো পথের রেখা হয়ে যায় ক্ষয়,
প্রেম ধীরে মুছে যায়, নক্ষত্রেরও একদিন মরে যেতে হয়,
হয় নাকি?
(জীবনানন্দ দাশ)

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!