কবিতায় অতসী চক্রবর্তী ঠাকুর

কুহেলিকা

একসুতো শৈশবে লেগে থাকে ভাতের আঠা
প্রতীক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকে দুপুর

আমি বিদ্যুতে চুমুক দিয়ে ব্জ্রপাত ঘটাই
শূন্যের বুকে ঢেলে দি প্রজাপতি গান

ফুটো বেড়ার ফাঁকে অন্ধকার ছিঁড়ে ঢুকে পড়ে একগ্রাস বসন্ত

ধোঁয়া চোখে কুঁজো পথ হাঁটে ফকির
ঢেঁকুর বাঁশিতে কৃপাণতার সুর…
চলকে ওঠে বুকের রক্ত

নিভন্ত আগুনের কালো ছোপ…
মেঘের ডাকে শব্দের জানালায় মোমবাতি জ্বালাই
মাটির স্বপ্নে খুঁজে চলি শব্দের অনন্ত যৌবন।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!