• Uncategorized
  • 0

দৈনিক ধারাবাহিকে মৃদুল শ্রীমানী

জন্ম- ১৯৬৭, বরানগর। বর্তমানে দার্জিলিং জেলার মিরিক মহকুমার উপশাসক ও উপসমাহর্তা পদে আসীন। চাকরীসূত্রে ও দৈনন্দিন কাজের অভিজ্ঞতায় মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের সমস্যা সমাধানে তাঁর লেখনী সোচ্চার।

বৃহন্নলা কথা

ওই যে রাজা পুরূরবার কথা উর্বশীকে মনে করিয়ে তাঁর রোষে পড়লেন অর্জুন, সেই পুরূরবার জন্মবৃত্তান্তে আরেক বৃহন্নলা কথা আছে। বাহলীক দেশের রাজা ইল ছিলেন কর্দম প্রজাপতির পুত্র। তিনি মৃগয়া করতে করতে এক বনে ঢুকে পড়েন। এদিকে ঠিক সেই সময় সেই বনে হরপার্বতী যৌনক্রীড়া করছিলেন। যৌনতার সেরা দেবতা লিঙ্গেশ্বর মহাদেব নিজের দয়িতার মনোরঞ্জনের জন্য স্ত্রী ভাবে খেলা করছিলেন। সেই নারীভাব মহেশের অন্যতম স্থায়ীভাব ছিল। ওই জন্য তিনি অর্ধনারীশ্বর নামেও পূজিত হন। যাই হোক, মহাদেব ওই বনে এমন ব্যবস্থা করেছিলেন যে, তাঁর ইচ্ছাক্রমে ওই বনের সকল পুরুষ জীব স্ত্রীত্ব প্রাপ্ত হবে। গাছপালাও বাদ যাবে না। কিন্তু এ ব্যাপারে মহাদেব কোনো পাবলিক নোটিশ দেন নি। তাই রাজা ইল বনের মধ্যে ঢুকে পড়লে হঠাৎ তাঁর যৌন অস্তিত্ব বদলে গেল। ছিলেন পুরুষ, হয়ে গেলেন নারী। খুব অপ্রস্তুত অবস্থায় পড়ে তিনি হরপার্বতীর সাধ্য সাধনা করতে থাকেন। পার্বতী রাজা ইলকে একমাস পুরুষ আর একমাস নারী হয়ে কাল কাটাবার সুযোগ দেন। স্ত্রী রূপে ইল অত্যন্ত রূপবতী হন। ইল হন ইলা। বুধ ইলার রূপে মুগ্ধ হয়ে নারীরূপী ইলের গর্ভে পুত্র উৎপাদন করেন। সেই পুত্রই পুরূরবা।
যৌনতার এই অসাধারণ ব্যাপার অর্জুনের বংশে বহু আগে থেকেই ছিল।

ক্রমশ…..

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!