• Uncategorized
  • 0

কবিতা – সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়

জন্ম:-১৯৯৯ সালে, বাঁকুড়া জেলায়। পিতা:- দীপক কুমার বন্দ্যোপাধ্যায় বর্তমানে রসায়ন সাম্মানিক স্নাতক স্তরে পাঠরত। লেখালেখি শুরু স্কুলজীবন থেকে। বিভিন্ন পত্রপত্রিকাতে লেখা প্রকাশিত।

বিদ্যাসাগর২০০/বিশেষ সংখ্যা

বিদ্যাসাগর

আমি আজ বিদ্যাকে বেচি,
জুলুম করে খাই।
বিদ্যাসাগর তোমাকে আর
কোনো দরকার নাই।
এখন মাতৃগর্ভে শিখি বাংলা
কারো আর ঋণ নাই।
প্রতিবাদ করছে করুক ওরা
যেন ‘বর্ণপরিচয়’ নুন খাই!
আগে নারী শিক্ষা,বিধবা বিবাহের খতে
করতাম ঈশ্বর নাম জপ।
যেদিন চাইতে শিখেছি ক্লিয়ার ফুটেজ,
সেদিন সবই ঢপের চপ।
‘দয়ার সাগর’ বলতো লোকে,
বইয়ে পড়েছি তা বটে!
আমাকে তো আর দয়া করোনি,
প্রতিবাদে নেমে মরবো কেন খেটে ?
আছে যা রাগ,প্রতিবাদ-বুলি স্ট্যাটাসে দিয়েই শেষ,
খাচ্ছি-দাচ্ছি-গাল-গল্পে আছি তো মেতে বেশ।
বাকি রইলো সকাল-বিকাল,নানান অজুহাতের ঢেউ!
কিছু বলবে ওসব বৃথা, কেন করো ঘেউ ঘেউ ?
তবু বলবো বাংলার গর্ব হারেনি,
স্রেফ নুইয়ে ফেলেছে মাথা।
হার না মানার জেদটাই হোক,
ফ্যাসিস্ট বর্ষণ রোখার ছাতা।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!