• Uncategorized
  • 0

কবিতায় রঘু জাগুলীয়া

স্রোতস্বতী

বহুদূর হতে নেচে-নেচে খুকি বালিকার মতন
অতল মুখশ্রী,দোদুল হাসিতে টোলপড়া গালে
চেয়ে আছে শুধু,জড়ের জীবিত চাউনি,ঋণ
অম্বুবিম্ব সারাৎসার,কতদিন পরবাসে চলে;
মাছের আঁশের রঙ, জ্যোৎস্নায় চিকচিক খলবলে
পরান আমার দুফোঁটা কান্না,ধুলো মাখামাখি
কতদূর আমিও চলেছি,শান্ত,অপলক,কুসুম সম্বলে
স্নান সেরে বসি–বুকের পাটাতনে দুহাত চেপ্টে রাখি
বিদগ্ধ মাটির দুহিতা সে,তাকে মা বলে ডাকি
হে সংসারতটিনী–উৎকন্ঠিত সাগরের প্রেমিকা
যত মেঘবংশজাত,শোকসারি–আর যা আছে বাকি,
নেমে এসে আজ দাও ব্রহ্মশুদ্ধ পুরাণ লেখা–
মাটির জরায়ু ফুড়ে গাছ জন্ম হয়, কোটি তারকা
রহস্যে পচে চিরে যাওয়া ভূখণ্ডে নম্র অববাহিকা।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!