• Uncategorized
  • 0

কবিতায় মনোনীতা চক্রবর্তী

মাধবীলতা

কিছু জিনিস না-জানাই বোধহয় বেশি ভালো ছিল। যেমন কিছু ছদ্মবেশী কথা বা কথোপকথন। যেমন বিরামহীন বুকের ওঠানামা।
বিশ্বাস করুন সব জানতে নেই।
রক্তে ঘাম জমে। লবনের পাহাড়ে কেমন চোখ-মুখহীন নুনের পুতুল হয়ে বসে থাকা!
আর ভালো লাগে না এ যন্ত্রণা…
কাক-পক্ষীহীন দুপুরেরও কিছু নিজস্ব গুপ্তচর থাকে
জানে তারা কোথায় কোন গোপন গচ্ছিত সন্তর্পণে।
পাওয়া ও পাইয়ে দেওয়ার মেহফিল।
খুলে গেছে সমস্ত দেওয়াল…
সালোয়ার থেকে শাড়ি, মধ্যদুপুর।
প্রতিবেশী ছায়া দেখে একটি দুল-হারানো কান
কিংবা শাড়ির কুচির ক্লান্তি-সুখ।
অথচ সমস্ত দেওয়াল জুড়ে ভালোবাসার চিহ্ন।
আসলে,চিহ্ন নয়।
ভালোবাসার নামে ব্যবহার করা একটি মেধার  ছাপ।
কিছু জিনিস বোধহয় না-জানাই বেশি ভালো ছিল।
যেমন একসঙ্গে একাধিক মুখ বিছানা জুড়ে
ডানে মায়া তো বাঁয়ে কায়া
উত্তরে রঞ্জিতা তো দক্ষিণে নন্দিতা
পুবে বনলতা তো পশ্চিমে মাধবীলতা…
আর কিছু ছদ্মবেশী কথা ও কথোপকথন।
পশ্চিমে মাধবীলতা হলেও
ডুবে যাওয়া তার অদৃষ্টে নেই।
মাধবীলতারা মরে না…
‘কালবেলা’ মনে পড়ে?
মাধবীলতারা মরে না…
বিপ্লবের অন্য নাম মাধবীলতা
মাধবীলতা মানে বিরামহীন বুকের ওঠানামা…
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!