• Uncategorized
  • 0

কবিতায় তনিমা হাজরা 

লক্ষ্যভেদের খেলা

এই যে ধরতে না ধরতেই কথা থেকে কথান্তরে ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে  লক্ষ্য।
এই যে একটা পাপ ঢাকতে
আর একটা নবতম পাপের সংযোজন।
একটা দুস্কর্মের নীচে তলিয়ে যাচ্ছে আর একটা দুস্কর্ম,
এই যে দিকভ্রান্ত করে দিচ্ছে চিন্তা।
মুঠো মুঠো অন্যায় ছড়িয়ে রেখে চেঁচাচ্ছে কর্তারা “ধর,ধর”।
মাছির মতো  মূর্খ মানুষকে ছুটিয়ে মারছে একটা দুর্গন্ধ থেকে আর একটা দুর্গন্ধে…
হে গলিত রাষ্ট্র, হে নির্বোধ, সিউডো, বুদ্ধিজীবীর পাল,
হে বিচারবুদ্ধিহীন, তাঁবেদারকুল,
হে স্বল্পদামে বিকিয়ে যাওয়া মাথা,
হে লোভে ঝরে পড়া চুল,
হে, সামান্যে ঝরে পড়া লালা,
হে তলিয়ে যাওয়া বোধ,
হে অস্থির চেতনা।।
এ কাদের বশীকরণ।। এ কাদের নিয়ন্ত্রণ।। এ কাদের লক্ষ্যভ্রষ্ট করে দিয়ে নিজেদের লক্ষ্যভেদের চতুর খেলা।।
তোমরা সবাই  তো মানুষ হয়েই জন্মেছিলে, কারা তোমাদের এমন কলের পুতুল বানিয়ে দিলো তবে??
তুমি বা তোমরা শ্রমিক পিপীলিকা নও, হুক্কাহুয়া হিক্কা তোলা শৃগালও নও।।
তবে কেন অসহায় কুশীলব হবে?
কেন দাবার ঘুঁটির মতো স্নায়ুহীন দাঁড়িয়ে  দাঁড়িয়ে চাল দেবার অধিকার অন্যকে দেবে??
দাঁড়াও, ভাবো,ভাবো, ভাবো একটিবার।।
তোমার মাথাটা বড্ড দামী।। এত স্বল্পমূল্যে কারো কাছে সহজে বিক্রি কোরো না ।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!