কবিতায় পীযূষ সরকার

ও.টি

বেঁচে থাকা একটা অভ্যেস ও অসহায়তা
আমি ঘুমের ঘোরে অ্যাম্বুলেন্সের আওয়াজ শুনি
আস্তে করে দরজা খুলে যায় , আস্তে করে দরজা বন্ধ হয়…
বাইরে লাল রঙের প্রত্যেকটি চেয়ারে তুমি বিরহের মতো বসে থাকো
আমি চিৎকার করতে গিয়ে চুপ হয়ে যাই , ঝুঁকে পড়ি
চটিতে পা গলাতে গলাতে কান্না পায় আমার
যদিও দুঃখের তেমন কিছু নেই । ভাবি-
সুখেরই বা কী আছে ?
কে আছে ?

খেলা

অনেক হারের পর , তিরস্কার ও অপমানের পরও
হোহো করে হেসে উঠছি , ইটের টুকরো তুলে ছুঁড়ে দিচ্ছি শান্ত আকাশে
আমি পরোয়া করি না, জেনো
যেকোনো সুন্দরের ঠোঁটে চুমু খেতে পারি । তিনবাত্তি মোড়ে
ট্রাফিক অচল করে দেখাতে পারি খেলা-
শরীর ভর্তি সাপ ,শরীর ভর্তি বিন বাঁশি
অথচ আমার কোনো জাদু দেই , মন্ত্র নেই , তুকতাক নেই
সবই ভালোবাসার জোর ,যা তুমি বিশ্বাস করো না
পছন্দ করোনা আমি উলঙ্গ বলে….

থিম

কেউ কেউ মরে যায় হঠাৎ… বুকের ভেতর..
তার মৃতদেহ অনেকদিন বহন করি আমরা ;
পথের দুপাশে সাদা
খই.., কান্নার বীজ..
স্মৃতি ছাড়া আমাদের কী থাকে ,মলিন ?
মানুষের থিম সেজে হেঁটে যায় অনেক মানুষ …
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!