কবিতায়ণে মৌসুমী রায় 

এ মহানগর

এ শহর জানে তোমার আমার প্রেম
ভিক্টোরিয়ার উত্তাল সে আবেগ
এ শহর জানে বাঁধতে মনের সেতু
দুটি জনপদ মিলে মিশে হয় এক
এখানেই মাঠে বাদামের  খোলা ভাঙে
দ্রুত তার চেয়ে ভেঙে যায় দুটি মন
ডিগ্রী কাগুজে মিছে ভারী করে ব্যাগ
নৌকা ভাসিয়ে ঘরে ফেরে সে শ্রাবণ
শহরের পথে আবেগ খোলামকুচি
স্নেহ ফ্রীজ করে বৃদ্ধাবাসের মুখ
ভালোবাসা শুধু ভোকাট্টা সেই ঘুড়ি
সুতো ছিঁড়ে দূর দূরে যাওয়াতেই সুখ
পুরনো দালান অ্যান্টিকশপে বেচে
পাঁচতলা মল বুকের ওপরে জাগে
পায়রার খোপে তুমি আমি সংসার
জীবন তবু এখনো ভালোই লাগে
সময় পেরিয়ে অসময়ে খুঁজি ঘর
সেতু ভেঙে গেছে রাস্তায় আশ্রয়
ত্রিফলার আলো কবে গেছে নিভে দেহে
জোনাক জ্বালিয়ে নিভু নিভু রাত ক্ষয়
তবু এ শহরে তুমি ছিলে মিশে মনে
লেফ্রয় রোডে ,ট্রামের চাকার তলে
নন্দনে আজো ধুলিকণা ঋতুময়
জোড়াসাঁকো পথে শেষ রথ যায় চলে
সূর্য এখন নিভৃতে ডুবছে পাটে
মযদানে ঘোড়া একলা চলেছে রেসে মোহরকুঞ্জে একা বসে সেই মেছয়ে
ফিরবেই তুমি ভুলপথে দিনশেষে …
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!