মার্গে অনন্য সম্মান সুমিতা চৌধুরী (সর্বোত্তম)

অনন্য সৃষ্টি সাহিত্য পরিবার

সাপ্তাহিক প্রতিযোগিতা পর্ব – ১০৩
বিষয় – সমাজসেবা/ প্রিয় লেখক/ আত্মশুদ্ধি

চাটুকারিতার গুণসংকীর্তন

আত্মগরিমায় মগ্ন সবাই আজ
চাই শুধু করতালি,
বাহবা, কুর্ণিশ, সেলামেই অভ্যস্ত সদা,
দিয়ে মনের ঘরে যতো জোড়াতালি!
আত্মদম্ভের নেশায় বলি চড়েছে বিবেক,
চাটুকার পরিবৃত মোদের আসন।
সবজান্তার অবাধ ভূমিকায়,
ঝরে শুধুই বাগাড়ম্বর আর ভাষণ।
কখন যেন ঘুণপোকা সেঁধিয়েছে শিরদাঁড়ায়,
হুঁশ করিনি কখনো!
গুণকীর্তনে মেতে খুইয়েছি মান হুঁশ কবেই,
খুইয়েছি যে মনন- চেতনও!
শেষ লগ্নে এসে দেখি
পড়ে আছে ঘুণে খাওয়া কাঠামোটা নিরাবরণ,
চাটুকারের দল ছুঁড়ছে ব্যঙ্গ বিদ্রূপের হাসি,
শুধু বিবেক করছে অশ্রু বিসর্জন।
প্রলাপের সুরে বলছে বারে বারে,
“বারেক আপনার মুখোমুখি হলি না মনদর্পণে,
বারেক দেখলি না মনের শত ক্ষত,
আজ তাই অবহেলে রইলি পড়ে, তাঁবেদারির অন্ধগলিতে অসম্মানে।
সময় থাকতে যদি ধরতি আমার হাত,
মুছতি চাটুকারিতার প্রলেপ সব,
আপন কর্মে বাঁধতি আপন যাত্রাপথ,
তবে আজ থাকতো না পড়ে তোর আত্মার এই বেওয়ারিশ শব।”
শুধু আক্ষেপ আর প্রলাপে
শেষ হয় এই গুণসংকীর্তন যাত্রা,
তবুও এ সমাজের হুঁশ ফেরে না,
কালকের চাটুকার আজ পায় নায়কের মাত্রা!
এভাবেই চলে ঘুণে ধরা সমাজ চক্রবৎ,
একে একে সবাই চলে যায় কালের গর্ভে নিঃশেষে।
শুধু অস্থিপিঞ্জরের ঢেড়ের মাঝে,
পড়ে থাকে মানবসভ্যতার ধ্বংসাবশেষ আজ নিদারুণ ক্লেশে।।

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!