কবিতায় মালিপাখি

১। যে মেয়েটা

যে মেয়েটা ছড়ায় সাগর পারুল চাঁপার মনে ।
যে মেয়েটা খুশির খবর পাঠায় হলুদ বনে ।
যে মেয়েটা ঘুরে বেড়ায় শিরিন নদীর বাঁকে ।
যে মেয়েটা আপন মনে উদাস দুপুর আঁকে ।
যে মেয়েটা ধুলো ওড়ায় কুসুম পুরের পথে ।
যে মেয়েটা আবির ছড়ায় লাজুক মনের মাঠে ।
যে মেয়েটা সাহস জাগায় আশার প্রদীপ জ্বেলে
যে মেয়েটা রামধনু মন, সরায় আঁধার ঠেলে
যে মেয়েটা রূপকথা পুর । নুপুর পরে নাচে ।
যে মেয়েটা সোহাগ দিয়ে ফোটায় কুঁড়ি গাছে ।
যে মেয়েটা রোদের কুচি ছড়ায় নদীর কুলে ।
যে মেয়েটা মনের আগল সদাই রাখে খুলে ।
যে মেয়েটা শালুক ফুলের আদর ভালোবাসে ।
যে মেয়েটা খুশির পালক ছড়ায় সবুজ ঘাসে ।
যে মেয়েটা টগর, পলাশ, তিতির পুরের ছুটি ।
যে মেয়েটা নদীর সাঁকো । বুনো হাঁসের জুটি ।
যে মেয়েটা সাঁতার কাটে গাঁয়ের পুকুর ঘাটে ।
যে মেয়েটা কাগজ কুড়োয় নিঝুম পুরের হাটে ।
যে মেয়েটা ঝুমঝুমি ভোর, কেবল কাছে ডাকে
সেই মেয়েটাই বাঁশি আমার । হৃদয় জুড়ে থাকে

২। শিকড়

তুই শিলালিপি । দোপাটির চারা ।
তাই বুঝি পথে বাজে বাঁশি তারা !
ফোটে গান , ছোটে ঘামে ভেজা মোহ …
তোকে খুঁজি কেন ? ভুলে গেছি ওহ !
তোকে পেলে আমি, জানি সব পারি !
তোর সাথে ভাব ! তোর সাথে আড়ি !
তুই শিলালিপি ! মরীচিকা মাসি !
তোর কথা ভেবে কাঁদি আর হাসি !
পথ ভেঙে গেলে , ভাঙা পথ গড়ি !
যত বাঁধা আসে তত তোকে ধরি
আমি ডিঙি ! তুই, প্রজাপতি বাড়ি !
তোর সাথে ভাব ! তোর সাথে আড়ি !
তুই শিলালিপি ! চোখ ধরা পাখি !
তোর দুটি চোখে – মায়াদ্বীপ রাখি !
যত উড়ে যাস , তত আমি উড়ি …..
দিবানিশি তোকে নানা রঙে জুড়ি !
নাচে বাঁশি তার ! আলাদীন গাড়ি !
তোর সাথে ভাব ! তোর সাথে আড়ি !
তুই শিলালিপি ! মোনালিসা নদী !
বলে দেনা এসে, কিসে মেলে বোধি ?
পাতা ঝরা বেলা ! খরা, চোরাবালি ….
তোকে ভেবে ভেবে চোখে পড়ে কালি !
তবু ডানা মেলি … ! তবু হাত নাড়ি … !
তোর সাথে ভাব ! তোর সাথে আড়ি !
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!